kalerkantho


রূপচর্চা

তেলের জাদু

নারিকেল তেল চুলের জন্য জনপ্রিয় হলেও চুলের বিভিন্ন সমস্যায় বিভিন্ন তেলের মিশ্রণ বেশি কার্যকর। চুলের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে তেমনি মিশ্র তেলের খোঁজ দিয়েছেন নভীনসের রূপ বিশেষজ্ঞ আমিনা হক

২২ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



তেলের জাদু

* বিভিন্ন তেলবীজ থেকে প্রাপ্ত তেল ছাড়াও গাছ, শিকড় ও ফল থেকে পাওয়া এসেনশিয়াল অয়েল চুলের জন্য উপকারী।

* শুষ্ক-রুক্ষ চুলের জন্য ১ টেবিল চামচ নারিকেল তেলের সঙ্গে ১ চা চামচ ক্যাস্টর অয়েল আর আধা চা চামচ ল্যাভেন্ডার অয়েল মিশিয়ে মাথার ত্বক ও চুলে ম্যাসাজ করুন। এই মিক্সড অয়েল মাথার ত্বকে আর্দ্রতা জোগায় এবং চুল মসৃণ ও উজ্জ্বল করতে সহায়তা করে। চুল পড়া কমায় এবং নতুন চুল গজাতে সহায়তা করে।

* খুব বেশি তৈলাক্ত চুলের জন্য আমন্ড অয়েলের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা লেমন গ্রাস অয়েল মিশিয়ে নিন। কুসুম গরম করে স্কাল্পে ম্যাসাজ করুন সপ্তাহে এক দিন। পরদিন শ্যাম্পু করার পর ১ মগ পানিতে ২ টেবিল চামচ লেবুর রস মিশিয়ে মাথায় ঢালুন। তারপর মাথা ও চুল মুছে নিন। চুলের তৈলাক্ততা আর খুশকি থেকে রেহাই মিলবে। 

* চুলের আগা ফাটা সমস্যায় ১ কাপ অলিভ অয়েলের সঙ্গে আধা কাপ তিলের তেল ও ২ চা চামচ জোজাবা অয়েল মিশিয়ে নিন। কাচের বোতলে ভরে তিন দিন রোদে রাখুন। রাতে শোবার আগে পুরো চুলে, বিশেষ করে চুলের আগায় ভালো করে এই তেলের মিশ্রণ লাগান। সকালে গরম পানিতে তোয়ালে ভিজিয়ে পুরো চুলে জড়িয়ে রাখুন ৫ মিনিট। এরপর শ্যাম্পু করে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে আশানুরূপ ফল পাবেন।

*  নিম তেল ত্বককে ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ থেকে রক্ষা করে।

*  মাথায় ত্বকে ফুসকুড়ি, ব্রণ বা যেকোনো ছত্রাকের আক্রমণ হলে ৩ ভাগ অলিভ  অয়েলের সঙ্গে ১ ভাগ নিমের তেল ও কয়েক ফোঁটা টি-ট্রি অয়েল মিশিয়ে ম্যাসাজ করুন।

*  খুশকি কয়েক কোয়া রসুন ছেঁচে সমপরিমাণ সরিষার তেল ও নারিকেল তেলের সঙ্গে গরম করে নিন। নামিয়ে কুসুম গরম থাকতে এর সঙ্গে মেশান কয়েক ফোঁটা পিপারমেন্ট অয়েল। মাথায় ম্যাসাজ করে সারা রাত রাখুন। পরদিন শ্যাম্পু করে ফেলুন।



মন্তব্য