kalerkantho


ইন্টেরিয়র

ঠাণ্ডা দিনে গরম ঘর

রুম হিটার দিয়ে ঘর গরম করে কিছুটা আরাম পাওয়া গেলেও এতে ত্বকের ক্ষতির আশঙ্কা থাকে। এর বদলে প্রাকৃতিকভাবে ঘর কিছুটা গরম হলে বেশ হয়। এয়ারকন্ডিশন বা রুম হিটার ছাড়া শীতে ঘর গরম রাখার পরামর্শ দিয়েছেন ইন্টেরিয়র হাউস এস্থেটিকসের ডিজাইনার সাবিহা কুমু। লিখেছেন মারজান ইমু

২৫ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



ঠাণ্ডা দিনে গরম ঘর

সকালের রোদ ধরে রাখুন

শীতে দিন-রাত দরজা-জানালা বন্ধ করে রাখতে অভ্যস্ত আমরা। অথচ ঘর গরম রাখা এবং বিশুদ্ধ বাতাসের জন্য শীতে ভেন্টিলেশন খুব দরকার। সকালে সূর্য ওঠার সঙ্গে সঙ্গে ঘরের দরজা-জানালা খুলে দিন, বিশেষ করে ঘরের যে অংশে রোদ পড়ে, সেই দিকের দরজা-জানালা খুলে রাখুন। এখন বেশির ভাগ জানালার অর্ধেক অংশ খোলা যায়। শুধু খোলা অংশ নয়, জানালার বাকি অর্ধেক অংশের পর্দা সরিয়ে দিন। সূর্যের আলো ও তাপের সর্বোচ্চ ব্যবহার পাবেন ঘরে। সম্ভব হলে জানালার বিপরীত দেয়ালে একটা আয়না বসান। সূর্যের আলো আয়নায় প্রতিফলিত হয়ে ঘরের তাপমাত্রা দ্রুত বাড়িয়ে দেবে।

রাতেও গরম থাকুন

বিকেলে সূর্য ডোবার আগেই বন্ধ করে দিন সব দরজা-জানালা। এতে রাতে অনেক সময় পর্যন্ত ঘরে পাবেন আরামদায়ক উষ্ণতা। শীতে জানালায় ভারী পর্দা ব্যবহার করুন। ঘরের দেয়াল বেশি সময় তাপ ধরে রাখতে পারে না। তাই মাঝরাত থেকেই ঘর ঠাণ্ডা হতে শুরু করে। তাপ ধরে রাখতে দেয়ালে ছোট কার্পেট বা শতরঞ্জি ঝোলাতে পারেন। এ ক্ষেত্রে বুকশেলফ ভালো সমাধান হতে পারে। যে দেয়ালে রোদ পড়ে, তাতে কাঠের বুকশেলফ রাখুন। শেলফে সাজিয়ে রাখা বইগুলো খুবই ভালো ইনসুলেটরের কাজ করে, ফলে ঘরের তাপমাত্রা থাকে আরামদায়ক। ঘরের দেয়ালে লাগিয়ে নিতে পারেন ফয়েল কাগজ। বিভিন্ন গিফট শপে একটু মোটা কাগজ পাওয়া যায়। পছন্দের রং ও ডিজাইনের কাগজ লাগিয়ে নিন দেয়ালে। দীর্ঘ সময় দেয়াল তাপ ধরে রাখতে পারবে।

মেঝেতে কার্পেট

মেঝেতে কার্পেট বা মাদুর বিছিয়ে নিন। বাজারে নানা ধরনের কার্পেটের পাশাপাশি বেত ও পাটের তৈরি আধুনিক ডিজাইনের চাটাইও পাওয়া যায়। ইচ্ছা আর রুচির সঙ্গে মিল রেখে। প্রয়োজনে রুম হিটারও ব্যবহার করতে পারেন। সে ক্ষেত্রে ঘরের তাপমাত্রার সঙ্গে মিলিয়ে হিটারের তাপমাত্রা ঠিক করতে ভুলবেন না।

আলো রঙের ব্যবহার

কিছু রং তাপ ধরে রাখতে সাহায্য করে। সম্ভব হলে শীতের শুরুতে ঘরে রং করিয়ে নিতে পারেন। উজ্জ্বল রঙের পর্দা আর বেড কাভার ব্যবহার করুন। লাল, কমলা, হলুদ, সোনালির মতো উজ্জ্বল রং ঘর খানিকটা গরম রাখবে, আবার সৌন্দর্যও বাড়িয়ে দেবে অনেকখানি। নতুন করে রং করা সম্ভব না হলে ঘরের ইন্টেরিয়র ফ্যাব্রিকস, যেমন দরজা-জানালার পর্দা, সোফার কাভার, বিছানার চাদরের রং বদলেও কিছুটা উপকার পেতে পারেন। শীতে ঘরে লাইট বদলে ফেলতে পারেন। হলুদ আলোর পাওয়ার বাল্ব ব্যবহার করতে পারেন। ঘরের কোণে স্ট্যান্ড আর টেবিল ল্যাম্প ব্যবহার করুন।



মন্তব্য