kalerkantho


খাওয়ার পরে

আমরা অনেকেই জানি, খাওয়ার পর পরই পানি পান উচিত নয়। কারণ হজমের অসুবিধা হয়। এ ছাড়া এমন অনেক কিছু আছে, যা খাওয়ার পর করতে নেই। আসুন জেনে নিই সেগুলো কী কী। জানালেন আসফি মোহাম্মদ

৯ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০



খাওয়ার পরে

*    রাতের খাওয়ার পর অনেকেরই অভ্যাস সঙ্গে সঙ্গে ঘুমিয়ে পড়া। অথচ খাওয়ার পরই শুয়ে পড়লে হজম প্রক্রিয়া ধীরগতিতে হয়।

এ ছাড়া অম্বল আর পেট ফেঁপে যাওয়ার আশঙ্কাও বেড়ে যায়। তাই খাওয়ার পর অন্তত ২ ঘণ্টা অপেক্ষা করুন।

*    খাওয়ার পরই ব্যায়াম বা শারীরিক পরিশ্রম করবেন না।   অনেকে ভাবেন খাওয়ার পর হাঁটাহাঁটি করলে শরীর সুস্থ থাকে। এটাও ভুল ধারণা। খাবার খেয়ে অন্তত আধঘণ্টা অপেক্ষা করুন। তারপর হাঁটতে যান। হাঁটা শরীরের জন্য উপকারী। এর ফলে তাড়াতাড়ি খাবার হজম হবে এবং পেটে মেদ জমবে না।

তবে খাওয়ার পর ভারী ব্যায়াম না করাই ভালো। এতে পেটে ব্যথা হতে পারে। ব্যায়াম করতে চাইলে ৩ ঘণ্টা অপেক্ষা করে ব্যায়াম করুন।

*    অনেকে খাওয়ার পর পরই সিগারেট ধরান। এ অভ্যাস বাদ দিন। খাওয়ার পর পরই ধূমপান করলে অম্বলের আশঙ্কা বেড়ে যায়। এ ছাড়া যাদের পেটের সমস্যা আছে, তাদের অবস্থা আরো খারাপ হতে পারে। শরীরের কোলোনের মাংসপেশির ওপরেও বাজে প্রভাব পড়ে।

*    খাওয়ার পরই গোসল করলে হজমের সমস্যা হতে পারে। হজম করতে শরীরের অনেক এনার্জির দরকার হয়। একই সঙ্গে পেটের মধ্যে রক্তের প্রবাহ অনেকটা বেড়ে যায়। কিন্তু গোসল করলে শরীরের তাপমাত্রা কমে। ফলে হজম হতে বেশি সময় লাগে। তাই খাওয়ার পর অন্তত ৩০ থেকে ৪৫ মিনিট অপেক্ষা করে গোসল করুন।

*    খাওয়ার পর যদি বেল্ট ঢিলা করতে হয় তাহলে বুঝতে হবে প্রয়োজনের অতিরিক্ত খাবার খেয়েছেন। আর এটা যদি অভ্যাসে পরিণত হয়, তাহলে কিছু দিনের মধ্যেই মেদ জমবে। তাই বেল্ট ঢিলা করবেন না।

*    ফল আমাদের শরীরের জন্য খুবই উপকারী। কিন্তু খাওয়ার পর পরই ফল খাওয়া খুবই অস্বাস্থ্যকর অভ্যাস। এ সময় শরীর ঠিকমতো ফল হজম করতে পারে না। আর রাতের খাবার খাওয়ার পর ফল খেলে আরো বেশি ক্ষতি হয়। কারণ ফলের মধ্যে যে চিনি থাকে তা  ঘুমকে বিলম্ব করে।


মন্তব্য