kalerkantho


পাউডার ব্যবহারের আগে

গরমে শিশুর স্বস্তির জন্য অনেকে পাউডার ব্যবহার করেন। তবে পাউডার ব্যবহারের আগে জেনে নিতে হবে কিভাবে পাউডার ব্যবহার করবেন। বিস্তারিত জানালেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের নবজাতক বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান ও শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ প্রফেসর মোহাম্মদ সহিদুল্লা

৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



পাউডার ব্যবহারের আগে

গরমের সময় অনেকে শিশুদের গায়ে ঘন ঘন পাউডার মাখেন, যাতে শরীর ঠাণ্ডা থাকে। অনেক সময় শিশুর শরীরের ভাঁজগুলো ঘামে স্যাঁতসেঁতে হয়ে যায়।

এমনটা হলে পাউডার ব্যবহার করা যেতে পারে। এতে শিশু কিছুটা আরাম ও স্বস্তি পাবে। ত্বকে ফাঙাস আক্রমণের আশঙ্কাও থাকবে না। শিশুর ত্বকও শুকনো থাকবে। তবে পাউডার ব্যবহারের ক্ষেত্রে কয়েকটি জিনিস খেয়াল রাখা দরকার। বাজারে নানা ধরনের পাউডার পাওয়া যায়। আবার ছোট ও বড়দের পাউডারও আলাদা। শিশুর পাউডার উন্নত ও ভালো কম্পানির হতে হবে। গরমে যদি শিশুর ঘামাচির প্রবণতা থাকে, তাহলে অনেকে বড়দের প্রিকলি হিট (ঘামাচি নিরোধক) পাউডার ব্যবহার করেন। তবে এসব পাউডার শিশুর শরীরে না মাখাই ভালো। ঘামাচি নিরোধক পাউডারে কেমিক্যাল থাকায় শিশুর সংবেদনশীল ত্বকে র্যাশ হতে পারে।

এ ছাড়া গোসলের পর ভেজা শরীর ভালোভাবে না শুকিয়ে পাউডার দেবেন না। অতিরিক্ত পাউডার ব্যবহার করা উচিত নয়। অতিরিক্ত পাউডার ত্বকে ধুলাবালি আটকে রাখে। শিশুর ক্ষেত্রে ট্যালকম বেবি পাউডার ব্যবহার করা ভালো। ট্যালকম পাউডার তৈরি হয় ট্যাল্ক দিয়ে। ট্যাল্ক হলো এক ধরনের ম্যাগনেশিয়াম সিলিকেট। কিছু বেবি পাউডার তৈরি হয় কর্ন স্ট্রাচ দিয়ে। তাই শিশুর জন্য কোন ধরনের পাউডার উপযোগী জানতে হবে।   মনে রাখবেন, নবজাতক ও শিশুর পাউডারও আলাদা হয়। তাই পাউডার ব্যবহারের আগে চিকিত্সকের পরামর্শ নিন।

 

জেনে রাখুন

►   বড়দের পাউডার গাঢ় ঘনত্বের হয়। এটা শিশুর ত্বকে ব্যবহার করলে ত্বকের ছিদ্র বন্ধ হয়ে যায়। এতে ত্বকে প্রদাহ সৃষ্টি হয়।

►    নবজাতকের জন্মের প্রথম সপ্তাহে শরীরে পাউডার লাগানো উচিত নয়। কারণ শিশুর ত্বকে প্রাকৃতিক যে তেলের স্তরটি থাকে, তা নষ্ট হয়ে ত্বক নাজুক হয়ে পড়ে।

►    ট্যালকম পাউডারের ছোট ছোট কণা শিশুর শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমে শ্বাসনালিতে ঢুকে শ্বাসকষ্ট তৈরি করতে পারে। তাই শিশুর গলায় ও মুখের ত্বকে পাউডার দেওয়া থেকে বিরত থাকুন।


মন্তব্য