kalerkantho


নান্দনিক খাবার টেবিলের জন্য

অতিথি আপ্যায়নে খাবার টেবিলের গুরুত্বও কম নয়। পরিবেশনের জায়গাটাও হওয়া চাই দৃষ্টিনন্দন। এতে পেটের ক্ষুধার সঙ্গে চোখের ক্ষুধাও মিটবে। খাবার টেবিল আপনার রুচিরও প্রকাশ ঘটাবে। খাবার টেবিলে ডেকোরেশন সামগ্রীর দরদাম জানালেন পিন্টু রঞ্জন অর্ক

অন্যান্য   

৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



নান্দনিক খাবার টেবিলের জন্য

টেবিল ম্যাট

টেবিলের সাজে সুন্দর টেবিল ম্যাটের জুড়ি মেলা ভার। বাজারে পাটি, বাঁশ, রাবার ও ফাইবার—এই তিন ধরনের টেবিল ম্যাট পাওয়া যাচ্ছে।

ছোট, মাঝারি ও বড়—তিন রকমেরই পাবেন। আবার গোল, চারকোনা ও ডিম্বাকার হয়ে থাকে। নিউ মার্কেটের সেঁজুতি এন্টারপ্রাইজের বিক্রয়কর্মী মো. আলাউদ্দিন জানান, বাঁশের তৈরি বিভিন্ন রঙের টেবিল ম্যাটগুলোর চাহিদাই এখন বেশি। টেবিল ম্যাটগুলো সাধারণত সেট হিসেবে বিক্রি করা হয়। হলুদ, সবুজ, কমলা, লাল, মেরুন, —এভাবে মোট ১২টি রঙের টেবিল ম্যাট পাবেন। টেবিল কভারের সঙ্গে ম্যাচ করেও টেবিল ম্যাট পাওয়া যাচ্ছে। এ ছাড়া পাট ও সুতি কাপড়ের মিশ্রণে তৈরি ম্যাটও পাবেন। বাঁশের টেবিল ম্যাটগুলো ৩০০ থেকে ৪৫০ টাকা, রাবারের ১৪০ থেকে ২৫০, ফাইবারের ২৫০ থেকে ৩৮০, কাপড়ের টেবিল ম্যাট পাবেন ২২০ থেকে ৫৫০ টাকার মধ্যে।

 

রানার

রানার দিয়ে টেবিলের বাড়তি সৌন্দর্য ফুটিয়ে তোলা যায়।

কাপড়, পাট ও রাবারের বিভিন্ন আকারের রানার পাবেন বাজারে। লাল, নীল, হলুদ, সবুজ রঙের নানা নকশার রানার হয়। ব্লকপ্রিন্ট, স্ক্রিনপ্রিন্ট, হাতের কাজ ও এমব্রয়ডারি করা রানার সব ধরনের টেবিলের সঙ্গেই মানিয়ে যায়। বিভিন্ন রঙের ও বিভিন্ন নকশায় করা রানারগুলো খাবার টেবিলকে দৃষ্টিনন্দন করে তুলবে। কাপড়ের রানার মিলবে ৫৫০ থেকে ১৫০০ টাকায়, পাটের ৪০০ থেকে ৮৫০ এবং রাবারের রানারের দাম শুরু ৪০০ টাকা থেকে।

 

টেবিল কভার

বাজারে সুতি, প্লাস্টিক বা রাবারের তৈরি হরেক রকম টেবিল কভার বা টেবিলের ওপর বিছানো কাপড় পাওয়া যায়। টেবিল কভারগুলো পিস বা গজ হিসেবে বিক্রি হয়। বিভিন্ন রঙের কভারে ফুল, ফল ও বিভিন্ন প্রিন্টের নকশা করা থাকে। টেবিলের ধরন অনুযায়ী পছন্দের কভারটি কিনতে পারবেন। কাপড়ের টেবিল কভার প্রতি পিস ২৫০ থেকে ১২০০ টাকা, প্লাস্টিকের ৬০ টাকা ৩৫০ টাকা, রাবারের কভার প্রতি পিস ২৫০ থেকে ৮৫০ টাকা।

 

বাহারি ফুল-ফল

যাঁরা খাবার টেবিলের ওপর কাঠের পরিবর্তে কাচ ব্যবহার করেন, তাঁরা টেবিলের নিচে সেমি বক্সে নানা রকম কৃত্রিম ফুল ও ফল দিয়ে সাজাতে পারেন। সে ক্ষেত্রে টেবিলের ওপর কিছু না রাখলেও চলে। টেবিলের নিচের সাজটাই ওপরের শোভা বর্ধন করবে। এসব বাহারি ফুল-ফলের ডেকোরেশন পিসের দাম পড়বে ২৫০ থেকে ১৮০০ টাকা।

 

গ্লাস ঢাকনা

কাঠ, কাচ, প্লাস্টিক ও ফাইবারের গ্লাস ঢাকনা পাওয়া যায়। ঢাকনাগুলো ছোট ও বড় আকারের হয়ে থাকে। ফুল, ফল, পাখি বিভিন্ন ডিজাইনের নকশা করা গ্লাস ঢাকনা কিনতে পারেন। কাঠের গ্লাস ঢাকনা একেকটি ৫০ থেকে ২০০ টাকা, কাচের ৪০ থেকে ২০০ টাকা ও প্লাস্টিক ও ফাইবারের ৩০ থেকে ২৫০ টাকায় কিনতে পারবেন।

 

গ্লাস স্ট্যান্ড

বাজারে স্ট্যান্ড স্টিল, প্লাস্টিক ও কাঠের হয়ে থাকে। গ্লাস স্ট্যান্ডগুলোয় ছয়টি ও ১২টি গ্লাস রাখা যায়। প্লাস্টিক ও কাঠের স্ট্যান্ডগুলো বিভিন্ন রঙের হয়। স্টিলের গ্লাস স্ট্যান্ড ১২০ থেকে ৩০০, প্লাস্টিকের স্ট্যান্ড ৭০ থেকে ১৫০ ও কাঠের স্ট্যান্ড ১০০ থেকে ২৫০ টাকা।

 

প্লেট স্ট্যান্ড

 স্টিল, প্লাস্টিক, কাঠ ও ফাইবারের প্লেট স্ট্যান্ড পাবেন বাজারে। এগুলোর ছোট-বড় আকারের হতে পারে। কোনো স্ট্যান্ডে ছয়টি, কোনোটিতে ১২টি, আবার কোনোটিতে ২৪টি প্লেট রাখা যায়। স্টিলের প্লেট স্ট্যান্ড ১৮০ থেকে ৪৫০ টাকা, প্লাস্টিকের ১২০ থেকে ৩৫০, কাঠের ১৫০ থেকে ৩৫০ ও ফাইবারের প্লেট স্ট্যান্ডের দাম পড়বে ১৭০ থেকে ৪০০ টাকা।

 

চামচ স্ট্যান্ড

চামচ স্ট্যান্ড আলাদা করে কেনার এখন আর তেমন দরকার পড়ে না। চামচ সেটের সঙ্গেই পাওয়া যায়। এ ছাড়া স্টিল কিংবা কাঠের তৈরি স্ট্যান্ড ও কাচের বক্স পাবেন। এগুলোর কোনোটায় শুধু চামচ রাখা যায়, আবার কোনোটায় ছুরিসহ রাখা যায়। স্টিলের চামচ স্ট্যান্ড পাবেন ১২০ থেকে ২৫০ টাকায়, কাঠের স্ট্যান্ড ১০০ থেকে ২২০, কাচের বক্স ১০০ থেকে ২৫০ এবং চামচসহ স্ট্যান্ডের দাম ৫০ থেকে ১০৫০ টাকায়।

ফুলদানি

টেবিলের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে তাজা ফুলসহ ফুলদানি রাখতে পারেন টেবিলের মাঝখানে। মাটি, কাচ, ক্রিস্টাল ইত্যাদির ফুলদানিও রাখা যায়। তবে টেবিলের আকার অনুযায়ী ফুলদানি রাখতে হবে। উপকরণের ওপর ফুলদানির দাম নির্ভর করে। সর্বনিম্ম ৮০ থেকে ৭০০ টাকার মধ্যে মোটামুটি ভালোমানের ফুলদানি পাবেন।

 

কোথায় পাবেন

যেকোনো ক্রোকারিজের দোকানেই এসব সামগ্রী পেয়ে যাবেন। এ ছাড়া নিউ মার্কেট, বসুন্ধরা সিটি, গুলশান ডিসিসি মার্কেট, গুলিস্তান স্টেডিয়াম মার্কেট ও এলিফ্যান্ট রোডের বিভিন্ন দোকানে এসব সামগ্রী পাবেন।


মন্তব্য