kalerkantho


জেনে খাই পুষ্টি পাই

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



জেনে খাই পুষ্টি পাই

শুধু খেলেই হবে না। শান্ত মনে, উপভোগ করে খেলেই খাবারের পুষ্টিগুণ পুরোপুরি মিলবে।

কিভাবে রান্না করবেন, কিভাবে খাবেন তার ওপরও নির্ভর করে কতটা পুষ্টি আপনার শরীরে প্রবেশ করছে। বিস্তারিত জানালেন পুষ্টিবিদ ফারহানা নিশি

 

► তাজা খাবার খান। প্রতিদিন রান্না করতে পারলে ভালো হয়। আর রান্না করার তিন ঘণ্টার মধ্যে খেয়ে নেওয়ার চেষ্টা করুন। ফ্রিজে খাবার রাখলেই তার পুষ্টিগুণ অর্ধেক নষ্ট হয়ে যায়। আর ডিপফ্রিজে খাবার রাখলে পুরোটাই নষ্ট হয়ে যায়। অনেকের পক্ষে প্রতিদিন রান্না করা সম্ভব নয়। তাদের পক্ষে অন্তত সকালের নাশতা আর রাতের খাবারটা তাজা খাওয়ার চেষ্টা করা উচিত। আর রান্না করার সুযোগ থাকলে সে ক্ষেত্রে রোজকার রান্না রোজ করাই ভালো।

মোটকথা বাসি খাবার যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলুন।

► যত কম খাবার রান্না হবে, তত খাবারের পুষ্টিগুণ বেশি থাকবে। অনেক পরিমাণে রান্না করতে হলে, বেশি তেল ও মসলার দরকার হয়। আবার খাবার অনেকক্ষণ চুলার আঁচের ওপর রাখতে হয়। এতেই খাবারের পুষ্টিগুণ নষ্ট হয়ে যায়।

► ফল আস্ত খাওয়ার চেষ্টা করুন। কাটা মানেই খানিকটা ভিটামিন নষ্ট করা। যত টুকরো করবেন, তত পুষ্টি কমতে থাকবে। তাই আপেল, নাশপাতি, পেয়ারা গোটা খান। বড় কোনো ফল হলে যদি কাটতে হয় তাহলে খুব ছোট টুকরো করবেন না। ভালো করে চিবিয়ে খাবেন।

► সবজির ক্ষেত্রে রান্না করার কিছুক্ষণ আগে কাটুন। সবজি কেটে কখনো ফ্রিজে রাখবেন না। রান্না করার আগে ভালো করে ধুয়ে তার পরই কেটে রান্না করুন।

► জুসার বা মিক্সারে দিয়ে ফলের জুস করবেন না। এতে ফলের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট পুরোপুরি নষ্ট হয়ে যায়। চেষ্টা করুন, হাতে চালিত কোনো মেশিন দিয়ে করতে।

► মৌসুমি ফল সবজি অবশ্যই খাওয়ার তালিকায় রাখুন। আবহাওয়া, পরিবেশ, বাতাসের আর্দ্রতা সবই কিন্তু আমাদের হজমশক্তির ওপর প্রভাব ফেলে। তাই ঋতু পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে খাওয়াদাওয়ার ধরন একটু-আধটু বদলানোর অভ্যাস করুন।


মন্তব্য