kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ইন্টেরিয়র

বাঙালিয়ানার নতুন সাজ

বাঙালিয়ানা সাজের নতুন আইডিয়া দিয়েছেন ইন্টেরিয়র লবির ডিজাইনার আফজাল হক রতন

১৭ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



বাঙালিয়ানার নতুন সাজ

গৃহসাজের ভাবনায় খানিকটা পরিবর্তন আনুন। মাটি, বাঁশ ও বেতের মতো বাঙালিয়ানার সব উপাদান একসঙ্গে ব্যবহার করবেন না।

যেকোনো একটি উপাদানকে থিম হিসেবে বেছে নিন। এবার ফার্নিচার থেকে শুরু করে শোপিস—সবই হবে সেই নির্দিষ্ট উপাদানে। বৈচিত্র্য দেখে নিজেই অবাক হবেন। বাঁশকে রাখতে পারেন তালিকায়। ঘরের সাজে থাকবে বাঁশের প্রাধান্য। ফার্নিচার, শোপিস, দেয়াল সাজ—সবটিতেই বাঁশের ছোঁয়া। দুভাবে হতে পারে বাঁশের সাজ। প্রথমত মূল বাঁশ দিয়েই ডিজাইন করা। এতে ফার্নিচার বা সাজে সরাসরি মোটা বা বাঁশের অংশবিশেষ ব্যবহার করা হবে। অথবা বাঁশের থিমে নকশা করা। যেমন দেয়ালে বাঁশের পেইন্টিং বা ওয়াল পেপার কিংবা কাফ বা অন্য উপাদানে বাঁশের অবয়ব বা থিম ফুটিয়ে তোলা কিংবা এই দুইয়ের মিশেলেও আসতে পারে নতুনত্ব।

বসার ঘর দিয়েই শুরু হতে পারে বাঁশের গৃহসাজ। গতানুগতিক সোফার বদলে একটু অন্য রকম কিছু ভাবুন। গাছের গুঁড়ি মাঝখানে কেটে সোফার আসন বানিয়ে ফেলুন। সোফার ব্যাকে থাকছে বাঁশের বেড়া। সোফার পায়া হবে বাঁশ দিয়ে। হাতলেও রাখতে পারেন সোফার নকশা। ছিমছাম ব্যতিক্রমী লুক পাবেন।

কর্নার টেবিল বা সেন্টার টেবিল বরাবর সিলিং থেকে লম্বা করে দু-তিনটি বাঁশের হ্যাংগিং লাইট ঝুলিয়ে দিন। সাজে নতুনত্ব চাইলে বাঁশ দিয়ে নিজেই বানিয়ে ফেলুন হ্যাংগিং লাইট। একটা বাঁশের মাঝে কয়েকটি ছিদ্র করে নিন। অনেকটা বাঁশির মতো। তারপর তাতে রঙিন হিডেন লাইট বসিয়ে দিন। সিলিংয়ের সঙ্গে বাঁশের দুই মাথা ঝুলিয়ে দিন। নিমিষেই নজর কাড়বে এই আয়োজন।

শোবার ঘরের খাট আর কেবিনেটেও রাখতে পারেন বাঁশের থিম। দেয়ালের ফটোফ্রেম বাঁধাই হবে বাঁশের ফ্রেমে। এখানেও কর্নার ল্যাম্পে বাঁশের বৈচিত্র্য রাখুন। জানালায় পর্দার সঙ্গে একটা বাঁশের চিকও রাখতে পারেন। আলো আর আরাল দুই-ই থাকবে। কেউ কেউ আবার ফলস সিলিং পর্যন্ত নকশা করছেন বাঁশ দিয়ে।

প্যাসেজের খালি দেয়ালে বাঁশের বেড়া ফ্রেম করে ঝুলিয়ে দিন। বাঁশের বাঁশি, একতারা কিংবা মাথাল সাজান বাঁশের বেড়ার সঙ্গে। কর্নারে একটা বাঁশের শেলফ করে তাতে দেশীয় উপকরণের শোপিস রাখুন। জানালার পর্দা, সোফা ও কুশন কভারে উজ্জ্বল রং বেছে নিন। বাঁশের ল্যাম্পশেড আর মাটির পটারিতে কয়েকটি ইনডোর প্লান্ট দিয়ে একটা কর্নার সাজাতে পারেন।


মন্তব্য