kalerkantho

26th march banner

ব্যায়াম

সুইস বল

সুইস বলে ব্যায়াম করলে স্নায়ু ও পেশি শক্তিশালী হয়। এ ছাড়া শরীরের ভারসাম্যও বজায় থাকে। এই বলে বসে, শুয়ে ব্যায়াম করা যায়। কিভাবে করবেন জানালেন জিম এক্সপার্ট জহিরুল ইসলাম

২১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



সুইস বল

সুইস বল ব্যবহার করে ব্যায়াম করতে পারেন ছোট-বড় সবাই। এ ছাড়া যাঁরা দীর্ঘদিন মাংসপেশির দুর্বলতা কাটাতে ব্যায়াম করছেন, তাঁরা শক্ত মেঝের তুলনায় এই বলে বেশি আরাম পান। সুইস বল দিয়ে ব্যায়ামের সময় শরীরের ভারসাম্য ও মাংসপেশির দৃঢ়তা বজায় রাখতে হয়। এতে করে একসঙ্গে অনেক পেশি কাজ করে। ফলে বাহ্যিক পেশিগুলোর সঙ্গে দেহের অভ্যন্তরীণ পেশিগুলোর ব্যায়াম হয়। পেশি তাড়াতাড়ি দৃঢ় ও শক্তিশালী হয়। তবে সুইস বলে ব্যায়াম শুরুর আগে ঠিক করে নিতে হবে কেন ও কী উদ্দেশ্যে আপনি এই বল ব্যবহার করবেন।

উদ্দেশ্য যদি সাধারণ হয়, তবে বল দিয়ে স্ট্রেচিং এবং সন্ধিগুলোর কোমলতা বাড়ানোর জন্য নির্দিষ্ট ব্যায়ামগুলো করতে পারেন। একনাগাড়ে কিছু দিন সুইস বলের সাহায্যে বডি টোনের অভ্যাস করলে পরোক্ষে ফ্লেক্সিবিলিটি অনেক বাড়ে। জিমে ওয়েটট্রেনিংয়ের পর সুইস বল দিয়ে কুল ডাউন করা যায়।

উপকারিতা

বলের সাহায্য নিয়ে মাংসপেশিগুলোর স্ট্রেচিং প্রাকৃতিক উপায়ে শরীরে অক্সিজেনের ভারসাম্য রাখতে সাহায্য করবে। পেশির দুর্বলতা, আড়ষ্টতার ফলে যাঁরা দীর্ঘ দিন কোমরের ব্যথায় ভুগছেন, তাঁদের জন্য সুইস বল উপকারী। বিশেষ করে শিড়দাঁড়ার মাংসপেশি, স্পাইনাল, গ্লুুটিয়াল ও পায়ের হ্যামস্ট্রিংয়ের শক্তি ও নমনীয়তা বাড়িয়ে তুলতে সুইস বল দারুণ কাজ করে।

 

ব্যবহারের নিয়ম

► বল দিয়ে ফ্লোরে ব্যায়ামের সময় এক্সারসাইজ ম্যাট ব্যবহার করুন এবং ফ্লোর পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখুন।

►          আস্তে আস্তে সুইস বল ব্যবহার করুন। ভারসাম্য বজায় থাকবে।

►        অন্য সব ব্যায়ামের মতোই সুইস বল ব্যবহারের সময় শ্বাস নেওয়া ও ছাড়ার অভ্যাসটা ঠিক হতে হবে। শ্বাস নেওয়ার সময় বুক প্রসারিত করুন আর ছাড়ার সময় পেট ভেতর দিকে সংকুচিত করে মুখ দিয়ে শ্বাস ছাড়ুন। শ্বাস ছাড়ার সময়টা ১: ২ অনুপাতে বেশি রাখুন।

►        বারবার সময় পরিবর্তন না করে দিনের একটি নির্দিষ্ট সময়ে এই ব্যায়ামগুলো করুন।

►        দেহের উচ্চতা অনুযায়ী বলের আয়তন ঠিক করুন। উচ্চতা ৫ ফুট ২ ইঞ্চি বা তার কম হলে ৪৫ সেন্টিমিটার, ৫ ফুট ৩ ইঞ্চি থেকে ৫ ফুট ৮ ইঞ্চি হলে ৫৫ সেন্টিমিটার ও উচ্চতা ৫ ফুট ৯ ইঞ্চি থেকে ৬ ফুট পর্যন্ত ৬৫ সেন্টিমিটার বা তার বেশি হলে ৭৫  সেন্টিমিটার বল বেছে নিন।

 

সতর্কতা

►       মাথা ধরা, উচ্চ রক্তচাপ, চোখের অতিরিক্ত পাওয়ার, বুকে ব্যথা, হার্নিয়া, সন্ধি মুচকে যাওয়া, পেশিতে অতিরিক্ত টান ইত্যাদি সমস্যায় ও গর্ভবতী অবস্থায় এই ব্যায়াম করা যাবে না।

►        শুরুতে সুইস বলে একা একা ব্যায়াম করা উচিত নয়। কারণ নিজে নিজে অভ্যাস করতে গেলে চোটের আশঙ্কা থেকেই যায়। বাসায় কিংবা জিমে যেখানেই করুন না কেন, প্রশিক্ষকের সাহায্য নিতে হবে। অন্তত যতক্ষণ পর্যন্ত না পুরোপুরি ভারসাম্য ও পদ্ধতিটা যথাযথভাবে আয়ত্ত করতে পারছেন।


মন্তব্য