kalerkantho


রূপচর্চা : ঘরোয়া উপায়ে

দাগমুক্ত কনুই, হাঁটু ও গোড়ালি

শুষ্ক ত্বক, পরিচর্যার অভাব ও সূর্য রশ্মির কারণে কনুই, হাঁটু ও গোড়ালিতে কালো দাগ হয়। এ ছাড়া অতিরিক্ত হাঁটু গেড়ে বসে থাকলেও কালো দাগ পড়তে পারে। সচেতন থাকলে দাগ এড়িয়ে চলা সম্ভব। এ ছাড়া পরিচর্যা করেও দাগ দূর করতে পারবেন। কিভাবে করবেন—জানালেন রূপবিশেষজ্ঞ শারমীন কচি

২১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



দাগমুক্ত কনুই, হাঁটু ও গোড়ালি

 

কিভাবে পরিচর্যা করবেন

 

শসা ও হলুদ গুঁড়া

হলুদ গুঁড়া ১ চিমটি, শসার রস ১ চা চামচ মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি লাগিয়ে ৫ মিনিট পর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

নিয়মিত ব্যবহারে কালচে দাগ চলে যাবে।

 

বাদাম তেল ও চিনি

বাদাম তেল ২ চা চামচ ও  চিনি ১ চা চামচ মিশিয়ে পেস্ট বানান। এটি হাঁটু ও কনুইয়ে আলতোভাবে ঘষে লাগান। ১৫ মিনিট পর ধুয়ে নিন। আক্রান্ত স্থান নরম ও ফর্সা হবে।

 

লেবু ও চিনি

এক টুকরা লেবু চিনিতে রেখে ভালোভাবে চিনি লেবুর টুকরায় লাগিয়ে নিন। এবার টুকরাটি নিয়ে হাঁটু, কনুই ও গোড়ালির আক্রান্ত স্থানে ঘষে লাগান। সপ্তাহে এটি তিনবার পর্যন্ত লাগানো যেতে পারে। ত্বকের কালচে দাগ পুরোপুরি চলে যাবে।

 

ভিনেগার ও দই

প্রথমে ভিনেগার ২ চা চামচ ও  দই ২ চা চামচ মিশিয়ে প্যাক বানান। আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে কিছুক্ষণ ম্যাসাজ করে শুকানোর জন্য রেখে দিন। শুকিয়ে গেলে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। স্বাভাবিক কোমলতা ফিরে পাবে এবং মরা কোষ দূর হবে।

 

লেবু

প্রথমে লেবু অর্ধেক করে কেটে আক্রান্ত স্থানে আলতোভাবে ঘষে নিতে হবে। ১৫ মিনিট রেখে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। কালো দাগ কমাতে প্রতিদিন ব্যবহার করতে হবে।

 

অলিভ অয়েল

১ চামচ অলিভ অয়েল গরম করে তা দিয়ে ২ মিনিট হালকা ম্যাসাজ করুন। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে এবং সকালে গোসলের সময় পায়ের গোড়ালি পিউমিস স্টোন বা ঝামা দিয়ে একটু ঘষে নিন। গোসল শেষে ভেজা গোড়ালিতে ময়েশ্চারাইজিং ক্রিম  বা ভেসলিন লাগান।

 

সরিষার তেল

গোসলের পর সরিষার তেল দিয়ে ম্যাসাজ করলে ত্বকের আর্দ্রতা ঠিক থাকবে। আক্রান্ত স্থান মসৃণ হবে।


মন্তব্য