kalerkantho


টিপস

বাড়িতেই জিম হবে

ঘর ও বাইরের বিভিন্ন কাজ সামলানোর পর নিয়ম করে সময় মেনে অনেকেরই জিমে যাওয়া হয়ে ওঠে না। তাই বাড়িতেই একটি ছোট্ট জিম তৈরি করে নিতে পারেন। তবে জিম তৈরির আগে চাই সঠিক পরিকল্পনা। জিম তৈরির আগে কী করবেন জানুন।

১৪ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



বাড়িতেই জিম হবে

►    বাড়িতে জিম করার পরিকল্পনা থাকলে প্রথমেই আপনার ফিটনেস এক্সপার্টের সঙ্গে যোগাযোগ করুন। তালিকা করে জিমের ফিটনেস ইকুইপমেন্ট কিনুন এবং প্রতিটি ইকুইপমেন্ট ব্যবহারের সঠিক পদ্ধতি ও ওয়ারেন্টি                                                                                                                                                                                                       জেনে নিন।

►    বাড়িতে কোনো ফাঁকা ঘর থাকলে সেখানে জিম তৈরি করতে পারেন। সে রকম কোনো ঘর না থাকলে কোনো বড় ঘরের একদিকে গড়ে তুলতে পারেন নিজস্ব জিম। এছাড়ার বাড়ির বেসমেন্ট বা ছাদঘর থাকলে সেটাও জিমের জন্য ব্যবহার করা যায়।

►     বাড়িতে জিম তৈরি করার আগে কী ধরনের শরীরচর্চা করতে চান, সে সম্পর্কে নির্দিষ্ট ধারণা রাখুন। ওয়েট ট্রেনিং করতে চাইলে অপেক্ষাকৃত কম জায়গার প্রয়োজন। আবার অ্যারোবিকস করতে চাইলে একটু বেশি জায়গার প্রয়োজন পড়বে।

►     ব্যায়াম করার সময় গান শোনার অভ্যাস থাকলে জিমে অবশ্যই মিউজিক সিস্টেম রাখুন।

হ    বসার বা শোবার ঘরে জিম তৈরি করবেন না। যে ঘরে জিম তৈরি করতে চান, সে ঘরের মধ্য দিয়ে যাতে খুব বেশি যাতে যাতায়াত করতে না হয়, সেটা খেয়াল রাখুন। ব্যায়াম করার সময় বাড়ির সদস্যরা ক্রমাগত জিমে যাওয়া-আসা করলে মনোসংযোগে ব্যাঘাত ঘটতে পারে।

হ    জিমে ট্রেডমিল, টুইস্টার,সাইকেল, জিম বল অবশ্যই রাখতে পারেন।

হ     জিম করার জায়গা কম মনে হলে ঘরের একদিকের দেয়ালজুড়ে আয়না বসাতেন পারেন। এর ফলে ঘর বড় মনে হবে এবং আপনি ব্যায়াম করার সময় নিজেকে দেখতে পাবেন।

হ     যোগাসন, মেডিটেশন বা জিম করার সময় কী ধরনের মিউজিক শুনবেন, তা আগে থেকেই ঠিক করে রাখুন। নিয়মিত আধ ঘণ্টার বেশি জিম করলে কাছাকাছি একটি টেবিলে পানির বোতল, তোয়ালে ও  ফলের জুস রাখুন।

হ    পরিবারের সদস্যরা বসে ঠিক করে রাখুন কে কখন জিম ব্যবহার করবেন।

হ     জিমের ঘরের মেঝে কার্পেট বিছিয়ে দিন এবং জিমের সরঞ্জাম নিয়মিত পরিষ্কার করুন।


মন্তব্য