ভাত-332908 | A টু Z | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

শুক্রবার । ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৫ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৭ জিলহজ ১৪৩৭

ভাত

৭ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ভাত

স্বাস্থ্যকর খাবারের তালিকা হলে ভাত সেই তালিকার ওপরে থাকবে। অনেকেই জানেন, ভাত খেলে মোটা হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। কিন্তু বেশির ভাগ পুষ্টিবিদ মনে করেন, রোজ পরিমাণমতো ভাত শরীরের জন্য জরুরি। সেটা লাল চাল কিংবা সাদা চাল যা-ই হোক না কেন। জেনে নিন ভাত খাওয়ার উপকারিতা।

 

অ্যালার্জিবিহীন খাবার

ভাত হচ্ছে একেবারেই গ্লুটেন-ফ্রি খাবার। অনেকেই গ্লুটেনযুক্ত খাবার  খেতে পারেন না। গ্লুটেন হচ্ছে প্রোটিনের একটা অংশ। এক কথায় গ্লু বিশেষ, যা অন্ত্রের ভিলাইয়ের সঙ্গে জটের মতো লেগে থাকে। গ্লুটেনের কারণে ফুড অ্যালাজি, ক্রনিক ডায়রিয়া, আমাশয়, অন্ত্রের নান ধরনের উক্তেজনা, পেটের ব্যথা, জোড়ায় জোরায় ব্যথা, হাইপার এসিডিটি ইত্যাদি নানা ধরনের অসুখ হয়। ভাতে ভিটামিন ‘বি’, ‘ডি’, ফাইবার, আয়রন ও বিভিন্ন মিনারেল আছে, যা শরীরের জন্য খুব দরকারি।

 

উচ্চ কার্বোহাইড্রেটযুক্ত খাবার

ভাতে প্রচুর পরিমাণ কার্বোহাইড্রেট আছে, যা শরীরের শক্তির জোগান দেয়। হজমক্রিয়া সহজ রাখে। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে।

 

ওজন ঠিক রাখতে

নিয়মিত পরিমিত পরিমাণে ভাত খেলে ওজন ঠিক থাকবে। আবার ওজন বাড়াতেও ভাত খেতে পারেন।

 

আথ্রাইটিস প্রতিরোধ করে

ভাতে সিলেনিয়াম থাকে। শরীরের দুর্বলতা, হার্টের অসুখ, আথ্রাইটিস প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। অনেকের ধারনা ভাত খেলে বাত জাতীয় অসুখ বাড়ে সেই ধারণা ভুল; বরং সঠিক পরিমাণ ভাত খেলে উপকার হয়।

মন্তব্য