kalerkantho

সেরা পাঁচ বোলিং

মাজহারুল ইসলাম

৪ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



সেরা পাঁচ বোলিং

১. লাসিথ মালিঙ্গা, ৪-০-৩১-৫, ২০১২

লাসিথ মালিঙ্গা নামটা মনে এলে প্রথমেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে অসাধারণ সব ইয়র্কারের ছবি। ২০১২ ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে নিজের প্রথম ওভারেই ফেরত পাঠিয়েছিলেন তিন ব্যাটসম্যানকে।

তৃতীয় বলে লুক রাইটকে আউটের পর পঞ্চম ও ষষ্ঠ বলে যথাক্রমে জনি বেয়ারস্টো ও অ্যালেক্স হেলসকে ফিরিয়ে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা তৈরি করেছিলেন তিনি। পরে আরো দুই উইকেট তুলে নিয়ে ৪ ওভারে ৩১ রান দিয়ে ম্যাচে তুলে নেন ৫ উইকেট।

২. ওয়েইন পারনেল, ৪-০-১৩-৪, ২০০৯

ওয়েইন পারনেলের পেস আগুনে ছারখার হওয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজকে সুপার এইটের ম্যাচে প্রোটিয়ারা হারিয়েছিল ২০ রানে। দক্ষিণ আফ্রিকা ৭ উইকেটে তুলেছিল ১৮৩ রান। জবাবে ১৩ রান তুলতেই পারনেলের জোড়া আঘাত। পরে  ফেরান কিয়েরন পোলার্ড ও জেরম টেলরকেও।

৩. উমর গুল, ৩-০-৬-৫, ২০০৯

সুপার এইটে কিউইদের মাত্র ৯৯ রানে অল আউট করার মূল নায়ক উমর গুল। ১৩তম ওভারের তৃতীয় বলেই গুল তুলে নেন স্কট স্টাইরিসের উইকেট, পরের বলেই আউট পিটার ম্যাকগ্লাশান। পাঁচ উইকেট নিয়ে পাকিস্তানকে জেতান তিনি।

৪. ব্রেট লি, হ্যাটট্রিক, ২০০৭

টি-টোয়েন্টি যেখানে চার-ছয়ের খেলা, সেখানেই কিনা হ্যাটট্রিকও করা যায়! ব্রেট লি সেটাই প্রমাণ করেছিলেন বাংলাদেশের বিপক্ষে। ১৭তম ওভারের তৃতীয় বলে লি শুরুটা করেছিলেন সাকিব আল হাসানকে দিয়ে, চতুর্থ বলে মাশরাফি বিন মর্তুজাকে বোল্ড করার পর অলক কাপালিকে এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে আটকে পূরণ করেন হ্যাটট্রিক।

৫. রঙ্গনা হেরাথ ৩.৩-২-৩-৫, ২০১৪

চট্টগ্রামে সেমিফাইনালে ওঠার কঠিন সমীকরণে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১১৯ রানে গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। রঙ্গনা হেরাথের রূপকথার বোলিংয়ে ওই রানটাও বিশাল বানিয়ে ৫৯ রানের অসাধারণ জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে শ্রীলঙ্কা। ব্রেন্ডন ম্যাককালাম, রস টেলর, জেমস নিশাম, লুক রঞ্চি ও বোল্টকে ফেরান তিনি। ৩ রানে ৫ উইকেট নিয়ে এনে দেন রোমাঞ্চকর জয়।


মন্তব্য