kalerkantho


কী হবে এখন যুক্তফ্রন্টের?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ অক্টোবর, ২০১৮ ১১:৫১



কী হবে এখন যুক্তফ্রন্টের?

তিন দলের সমন্বয়ে গঠিত যুক্তফ্রন্ট টিকে আছে কি নেই তা নিয়ে এখন প্রশ্ন উঠেছে। কারণ তিন দলের মধ্যে দুই দল আ স ম রবের নেতৃত্বাধীন জেএসডি এবং মাহমুদুর রহমান মান্নার নেতৃত্বাধীন নাগরিক ঐক্য ড. কামাল হোসেন এবং বিএনপির নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্য ফ্রন্টে যোগ দিয়েছে। আর যোগদান থেকে বিরত আছে যুক্তফ্রন্ট সভাপতি অধ্যাপক এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন বিকল্পধারা। বিকল্পধারাকে না জানিয়েই গতকাল বৃহত্তর ঐক্যের বৈঠকে অংশ নেয় ওই দুটি দল। বিকল্পধারা বলছে, জামায়াতের সঙ্গে যে দল আছে সেই দলের সঙ্গে তারা ঐক্য করবে না। কিন্তু ওই দুই দল বিএনপির সঙ্গে জামায়াত আছে, এই বাস্তবতা মেনে নিয়েই বিএনপির সঙ্গে জোট করেছে।

গত বছরের ৪ ডিসেম্বর বিকল্পধারা, জেএসডি ও নাগরিক ঐক্য—এই তিন দলের সমন্বয়ে যুক্তফ্রন্ট গঠিত হয়েছিল।

জানতে চাইলে মাহমুদুর রহমান মান্না কালের কণ্ঠকে বলেন, যুক্তফ্রন্ট থাকবে না কেন? আছে। কিন্তু অন্য দুই দলের বৃহত্তর জোটের যোগদানে যুক্তফ্রন্টে  প্রভাব পড়বে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রভাব পড়া এক কথা; আর জোট ভাঙা আরেক কথা।

মাহী বি চৌধুরী বলেন, যুক্তফ্রন্ট থাকবে। কিন্তু কিভাবে, জানতে চাইলে তিনি বলেন, জামায়াত যেমন বিএনপির সঙ্গে আছে। কিন্তু বিএনপি তার পরও অন্য দলগুলোর সঙ্গে বৃহত্তর ঐক্য করেছে। তেমনি থাকবে, যোগ করেন মাহী।

জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন কালের কণ্ঠকে বলেন, যুক্তফ্রন্ট পৃথক কর্মকাণ্ড করবে কি না সে বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তাঁর মতে, ‘দুটি দল আলাদা ফ্রন্টে গেল। বি চৌধুরী এই ফ্রন্টে থাকবেনই না—এ কথা আমরা এখনো জোর দিয়ে বলছি না। তবে তিন দলের যুক্তফ্রন্ট থাকবে কি না এটি সিদ্ধান্তের বিষয় যে একজোট হয়ে যাওয়ার পর যুক্তফ্রন্টের অস্তিত্ব থাকবে কি না।’

মূলত যুক্তফ্রন্ট গঠন করা হয়েছিল আগামী নির্বাচন সামনে রেখেই। সুশাসনসহ কিছু কিছু বিষয়ে মৌলিক পরিবর্তনের কথাও এ জোট বলেছে। কিন্তু দুই দলের আলাদা নির্বাচনী জোটে যুক্ত হওয়ায় যুক্তফ্রন্ট এখন হুমকির মুখে পড়েছে। অনেকের মতে, ভেঙে গেছে।



মন্তব্য