kalerkantho


ওবায়দুল কাদের আলোচনায় বসতে রাজি হয়েছেন: নজরুল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৭ জুলাই, ২০১৮ ১৫:৫০



ওবায়দুল কাদের আলোচনায় বসতে রাজি হয়েছেন: নজরুল

ফাইল ছবি

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, বর্তমান সরকারের আমলে মানুষের ন্যূনতম অধিকার নেই। গার্মেন্টস মালিকরা ফুলে ফেপে বড় হয়েছে, আর শ্রমিকরা ন্যায্য মজুরির দাবিতে রাজপথে। সকল পেশার মানুষ আজ অতিষ্ঠ। মানুষের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। এই অবস্থায় দেশবাসীর কাছে আমাদের আহ্বান- আসুন আমরা মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে বাংলাদেশে প্রকৃত গণতন্ত্র, জনগণের শাসন, জনগণের দ্বারা নির্বাচিত সরকার গঠনের জন্য লড়াই করি।

আজ শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন। আমার দেশ পত্রিকায় ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে হত্যা উদ্দেশ্য নৃশঃস হামলার প্রতিবাদ ও দোষী ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে এ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ফখরুল আলম।

গতকাল ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে তার বৈঠক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ওবায়দুল কাদের সাহেব বলেছেন- বিএনপি চাইলে আলোচনা করতে রাজি; ভালো, আলহামদুলিল্লাহ, আমরা তো বহুবার বলেছি। আমরা বলেছি, জনগণের কিছু দাবি-দাওয়া আছে আমরা তা নিয়ে আলোচনা করতে চাই। আওয়ামী লীগ যদি আলোচনা করতে আগ্রহী হয় তাহলে আমি মনে করি এটা একটা ভালো লক্ষণ। তবে যিনি একথা বলেছেন তিনি কতক্ষণ একথার ওপর স্থির থাকতে পারবেন তা নিয়ে দুশ্চিন্তা আছি।

তিনি বলেন, আমরা চাইবো, বেগম জিয়াকে মুক্তি দিন। কারণ তাকে ছাড়া আলোচনা ও নির্বাচন- কোনোটাই অর্থবহ হবে না। আর আমরা বলেনি যে, বেগম জিয়ার দণ্ড মওকুফ করে দিন। আমরা এটা আদালত ও আপনাদের (সরকার) কাছে চাইবোও না।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের প্রকৃত গণতন্ত্র, জনগণের শাসন, জনগণের দ্বারা নির্বাচিত, জনগণের কাছে দায়বদ্ধ একটা সরকার প্রতিষ্ঠার জন্য আমরা লড়াই করছি। এবং সে নির্বাচন সকলের অংশগ্রহণে হতে হবে অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হতে হবে। হামলা-মামলা আর সিট ভাগাভাগি ২০১৪ সালের মতো নির্বাচন আমরা হতে দেবো না।

এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, বিএনপির শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ওবায়াদুল ইসলাম, সহ-তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক কাদের গনি চৌধুরী, সাংবাদিক নেতা সৈয়দ আবদাল আহমেদ প্রমুখ।



মন্তব্য