kalerkantho


নির্মূল কমিটির আলোচনাসভা

বিএনপি-জামায়াতের যড়যন্ত্র সম্পর্কে সজাগ থাকার আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৭ জুলাই, ২০১৮ ০২:২১



বিএনপি-জামায়াতের যড়যন্ত্র সম্পর্কে সজাগ থাকার আহ্বান

একাদশ জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে দেশে নানামুখী ষড়যন্ত্র হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী বিএনপি-জামায়াত জোটের এই যড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে জনগণকে সতর্ক থাকতে হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটিশন মিলনায়তনে ‘একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন : জাতীয় ও আঞ্চলিক নিরাপত্তা’ শীর্ষক আলোচনাসভায় বিশিষ্টজনরা এই আহ্বান জানিয়েছেন।

অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনাসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। সভায় আরো বক্তব্য দেন একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির, ইনস্টিটিউট অব কনফ্লিক্ট, ল’ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আব্দুর রশীদ (অব.), দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক নিরাপত্তা বিশ্লেষক ভারতের অরিন্দম মুখার্জি, সম্মিলিত ইসলামী জোটের সভাপতি হাফেজ মাওলানা জিয়াউল হাসান, শ্রীশ্রী প্রণব মঠের অধ্যক্ষ স্বামী সঙ্গীতানন্দজী মহারাজ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশ্ব ধর্ম ও সংস্কৃতি বিভাগের চেয়ারম্যান ফাদার ড. তপন ডি রোজারিও, বাংলাদেশ বুড্ডিস্ট ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ভিক্ষু সুনন্দপ্রিয়।

অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক জুলিয়ান ফ্রান্সিস সম্প্রতি মুক্তিযুদ্ধে অনন্য অবদানের জন্য বাংলাদেশের নাগরিকত্ব পাওয়ায় তাঁকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। পরে প্রতিক্রিয়ায় জুলিয়ান ফ্রান্সিস বাংলাদেশ সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, তিনি বাংলাদেশের সঙ্গে আছেন এবং আমৃত্যু নিজেকে এ দেশের নাগরিক হিসেবে সেবা করে যাবেন।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে ছয় হাজারেরও বেশি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে, একটি নির্বাচনও জঙ্গিবাদের কারণে স্থগিত হয়নি। জনগণের স্বতঃফূর্ত অংশগ্রহণে সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হয়েছে। শেখ হাসিনার সরকার যত দিন আছে এ দেশে জঙ্গিবাদ কোনোভাবেই প্রশ্রয় পাবে  না বলেও দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

একাদশ জাতীয় নির্বাচন প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচন যাতে সুষ্ঠু হয় এবং সবাই যাতে ভোট দিতে পারে সে জন্য প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন।’

শাহরিয়ার কবির বলেন, পাকিস্তান বিশ্বের সর্ববৃহত্ জঙ্গি উত্পাদনকারী দেশ। তারা এখন সারা বিশ্বে জঙ্গি রপ্তানি করছে। বাংলাদেশও তাদের যড়যন্ত্রের বাইরে নয়। পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই এ দেশে তাদের এজেন্ট জামায়াতকে দিয়ে এই যড়যন্ত্র বাস্তবায়ন করছে। এ জন্য জামায়াত এখন রোহিঙ্গাদের জঙ্গিবাদে উসকে দিচ্ছে। কারণ জামায়াত চায় রোহিঙ্গারা চট্টগ্রামের কিছু অঞ্চল নিয়ে মিয়ানমারের আরাকান রাজ্য দখল করে স্বাধীন করে নিক। কিন্তু এটা দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক নিরাপত্তার জন্য হুমকিস্বরূপ। ভারত-বাংলাদেশকে জাতীয় ও আঞ্চলিক নিরাপত্তার স্বার্থেই এর বিরুদ্ধে নেতৃত্ব দিতে হবে



মন্তব্য