kalerkantho


জাতীয় ঐক্যের নামে নতুন ‘ষড়যন্ত্র’: নাসিম

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৯ জুন, ২০১৮ ১৭:২০



জাতীয় ঐক্যের নামে নতুন ‘ষড়যন্ত্র’: নাসিম

বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সরকারবিরোধী আন্দোলনে যে ‘জাতীয় ঐক্য’ গড়ার কথা বলেছেন, তাকে ভোটের মাঠে পরাজিত ‘অশুভ শক্তি’র নতুন ‘ষড়যন্ত্র’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম।

শুক্রবার ঢাকার ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

‘আবার একটি গভীর ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে’ মন্তব্য করে আওয়ামী লীগ নেতা নাসিম বলেন, ‘তথাকথিত জাতীয় ঐক্যের নামে আবার কিছু মুখ চেনা অশুভ শক্তি মাঠে নামার চক্রান্ত করছে। আন্দোলনে, নির্বাচনের মাঠে পরাজিত হয় এই ধরনের কিছু অশুভ শক্তি আছে; তারা সব সময় মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে ভয় পায়।’

নাসিম বলেন, ‘তারাই জাতীয় ঐক্যের নামে ষড়যন্ত্র করার চেষ্টা করছে। এই ঐক্যে কারা আছে আপনারা সবাই জানেন। আমরা দেখেছি তারা ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করে অরাজগত পরিস্থিতি সৃষ্টি করে অসাংবিধানিক শক্তিকে ক্ষমতায় আনতে চায়। যেটা আমরা অতিতে দেখেছি।’

জাল ভোটে বাক্সভরাসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগের মধ্যে মঙ্গলবার গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বড় ব্যবধানে বিএনপির প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকারকে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম।

ওই নির্বাচনকে ‘জাল ভোটের উৎসব’ আখ্যায়িত করা বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বৃহস্পতিবার এক আলোচনা সভায় বলেন, তারা সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য একটি ‘জাতীয় ঐক্য’ তৈরির কাজ করছেন, যা সফল হলে সরকার ‘তিন দিনও’ টিকতে পারবে না। 

এর জবাবে জনগণকে ‘এদের বিষয়ে’ সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য নাসিম বলেন, ‘১৪ দল অত্যন্ত সতর্ক। আগামী ডিসেম্বরে নির্বাচন আসছে, এই নির্বাচনে যদি কোনো অশুভ শক্তি, মুখচেনা লোকগুলো আবার বিএনপি-জামাতকে সমর্থন দেওয়ার নাম করে অরাজকতা সৃষ্টি করতে চায়, চৌদ্দদল শক্তিশালী হাতে মোকাবেলা করবে।’

গাজীপুরে স্থগিত হওয়া নয় কেন্দ্র বাদে বাকি সব কেন্দ্রে সুষ্ঠু ভোট হয়েছে বলে নির্বাচন কমিশন দাবি করলেও নির্বাচন পর্যবেক্ষকদের অন্যতম মোর্চা ইলেকশন ওয়ার্কিং গ্রুপ (ইডব্লিউজি) বলেছে, ভোটের দিন যে ১২৯টি কেন্দ্রে তারা পর্যবেক্ষণ চালিয়েছে, তার মধ্যে ৪৬ শতাংশ কেন্দ্রে কোনো না কোনো ধরনের অনিয়ম হয়েছে।

এর প্রতিক্রিয়ায় নাসিম বলেন, ‘পৃথিবীর কোনো নির্বাচনই কিন্তু সবার মন জয় করতে পেরেছে এমন নয়। বাংলাদেশ বলেন, আমেরিকা বলেন, ব্রিটেনের নির্বাচনের কথা বলেন, ভারত বলেন এমনকি মালয়েশিয়ার যে নির্বাচন হল এটা নিয়েও অনেকে অনেক প্রশ্ন তুলেছে। কোনো নির্বাচন নিয়ে সবাই একশত ভাগ সন্তুষ্ট হবে না।’

এই আওয়ামী লীগ নেতার ভাষায়, ‘নির্বাচন যুদ্ধের মত। নির্বাচনী যুদ্ধের মাঠে যে শক্তভাবে থাকতে পারবে, মানুষের মন জয় করতে পারবে, সেই নির্বাচিত হবে।’

তবে অভিযোগ থাকলে ‘স্বাধীন নির্বাচন কমিশন’ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবে বলে মন্তব্য করেন সরকারের এই মন্ত্রী।

বৃহস্পতিবার ঢাকায় কূটনৈতিক প্রতিবেদকদের সঙ্গে এক আলোচনায় যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট বলেন,  খুলনা ও গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অনিয়ম-জালিয়াতি এবং রাজনৈতিক নেতাকর্মী ও প্রার্থীর পোলিং এজেন্টদের গ্রেপ্তার-হয়রানির খবরে তার দেশ উদ্বিগ্ন।

এ বিষয়ে নাসিমের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি বলেন, ‘তিনি (বার্নিকাট) ঠিক এভাবে বলেননি। তিনি যে পর্যবেক্ষণ দিয়েছেন, সেটা তার ব্যক্তিগত পর্যবেক্ষণ হতে পারে।’

‘গাজীপুর বা খুলনার জনগণ জানে কী নির্বাচন হয়েছে। যে যেই পর্যবেক্ষণ দিক না কেন, এটা তার ব্যক্তিগত বিষয়। এটা নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাই না।’

নির্বাচনে ১৪ দল মনোনীত প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম বিজয়ী হওয়ায় গাজীপুরবাসীকে অভিনন্দন জানান জোটের মুখপাত্র নাসিম।

তিনি বলেন, ‘নৌকার পক্ষে একটি গণরায় দিয়েছে। নব নির্বাচিত মেয়র ও গাজীপুরের ভোটারদের আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি। আশা করি গাজীপুরবাসীর প্রত্যাশা তারা পূরণ করবে। অত্যন্ত আন্তরিকভাবে ঘোষণা করছি, গাজীপুর-খুলনার মত সামনের তিন সিটির নির্বাচনেও আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে নৌকার পক্ষে কাজ করব।’

‘পরাজিত’ হলেও নির্বাচনে অংশ নেওয়ায় বিএনপিকে ‘অভিনন্দন’ জানিয়ে নাসিম বলেন, ‘আশা করি নির্বাচিত মেয়র কাউন্সিলরদের তারা সহযোগিতা করবে।’



মন্তব্য