kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


'দুদক যদি ডিস্টার্ব করার জন্য যায় তাহলে অসুবিধা আছে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ অক্টোবর, ২০১৬ ২০:২২



'দুদক যদি ডিস্টার্ব করার জন্য যায় তাহলে অসুবিধা আছে'

গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী মোশাররফ হোসেন বলেছেন, দুদক রাজউকে যাবে। কিন্তু যদি ডিস্টার্ব করার জন্য যায় তাহলে অসুবিধা আছে।


আজ মঙ্গলবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) আয়োজিত মিট দ্য রিপোর্টার্স অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন।
সাড়ে তিন কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় রাজউকের দুই জ্যেষ্ঠ প্রকৌশলীকে ২৯ আগস্ট রাতে গ্রেপ্তার করে দুদক। এরা হচ্ছেন উত্তরা অ্যাপার্টমেন্ট প্রকল্পের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী ও প্রকল্প পরিচালক ছাইদুর রহমান এবং রাজউকের নির্বাহী প্রকৌশলী, গুলশান-বনানী–বারিধারা ও উত্তরা লেক উন্নয়ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মনোয়ারুল ইসলাম।
ঘটনার পরদিন থেকেই তাদের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে রাজউকের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা কাজ বন্ধ রেখে বিক্ষোভ করতে থাকেন। ঘটনার তৃতীয় দিনে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। বিক্ষোভকারীরা এক পর্যায়ে দুদক কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধেই হয়রানির অভিযোগ তোলেন। এ অবস্থায় গণপূর্তমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। তিনি রাজউকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে বৈঠক করে বিষয়টি সুরাহার আশ্বাস দেন। পরবর্তী সময়ে দুদকের বিরুদ্ধে এই বিক্ষোভে উদ্বেগ জানায় ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) ও সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন)।
আজকের অনুষ্ঠানে বিষয়টি সম্পর্কে মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন সাংবাদিকেরা। মন্ত্রীকে প্রশ্ন করা হয়, তাহলে কী আপনি রাজউকে দুদকের অভিযানকে নিরুৎসাহিত করছেন? এর জবাবে মন্ত্রী উল্লিখিত বক্তব্য দেন। মন্ত্রী আরও বলেন, কেউই খুব স্বচ্ছ নয় (নোবডি ইজ ভেরি ট্রান্সপারেন্ট)। ব্যক্তিগত সুবিধা নেওয়ার জন্য কেউ যদি ফাইল নিয়ে টানাটানি করে তাহলে সমস্যা আছে।
ডিআরইউয়ের আয়োজনে মিট দ্য রিপোর্টার্স অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ। সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি জামাল উদ্দীন।


মন্তব্য