kalerkantho


কাল দেশে ফিরছেন খালেদা জিয়া

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২১:১৪



কাল দেশে ফিরছেন খালেদা জিয়া

দুবাইয়ে ছেলেকে বিদায় দিয়ে ফিরছেন খালেদা

বৃহস্পতিবার দেশে ফিরছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।   সন্ধ্যা নাগাদ খালেদা জিয়া ঢাকা পৌঁছাতে পারেন বলে তার সফরসঙ্গী এনামুল হক চৌধুরী জানিয়েছেন।

  সৌদি আরবে হজ পালনের পর দুবাইয়ে ছেলে তারেক রহমান ও তার স্ত্রী-সন্তানকে বিদায় দিয়ে কাল সন্ধ্যায় দেশে পৌঁছবেন তিনি।

এনামুল হক চৌধুরী বলেন, ম্যাডামসহ জনাব তারেক রহমান এবং তার পরিবারের সদস্যরা ভোরে মদিনার বাদশা আবদুল আজিজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছাড়বেন। দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যাত্রা বিরতিকালে ম্যাডাম তারেক রহমানসহ পরিবারের সদস্যদের লন্ডনগামী ফ্লাইটে বিদায় জানিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হবেন। সন্ধ্যায় ঢাকায় পৌঁছাবেন ম্যাডাম।

খালেদা জিয়ার সঙ্গে তারেক রহমান, তার স্ত্রী জোবাইদা রহমান ও মেয়ে জাইমা রহমান এবং প্রয়াত ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান রয়েছেন। মদিনা ছাড়ার আগে বুধবার রাতে তারা মসজিদে নববীতে নামাজ পড়বেন বলে এনামুল হক চৌধুরী জানান। এদিকে বিএনপি চেয়ারপারসনকে ঢাকায় স্বাগত জানাতে প্রস্তুতি নিয়েছেন দলের নেতাকর্মীরা।

দলের মহানগর শাখা এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টার মধ্যে বিমানবন্দরের সামনের সড়কের দুই পাশে অবস্থান নেওয়ার জন্য বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে বলা হয়েছে।

মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক মির্জা আব্বাস বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া হজ করে দেশে ফিরছেন।

আমরা কাল নেতা-কর্মীরা বিমানবন্দরের সামনে সমবেত হয়ে নেত্রীকে অভ্যর্থনা জানাব। নেতা-কর্মীদের নিয়ে বিকাল ৪টায় বিমানবন্দরের দুই পাশে সড়কে সুশৃঙ্খলভাবে দাঁড়ানোর প্রস্তুতি আমরা নিয়েছি।

হজ করার জন্য গত ৮ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়েন খালেদা জিয়া। কাছাকাছি সময় লন্ডন থেকে যাত্রা করে জেদ্দায় তার সঙ্গে মিলিত হন তারেক রহমান ও তার পরিবারের সদস্যরা। সেনা নিয়ন্ত্রিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে গ্রেপ্তার হওয়ার পর জামিনে মুক্ত হয়ে চিকিৎসার জন্য দেশ ছেড়ে আর ফেরেননি তারেক রহমান। স্ত্রী, সন্তান নিয়ে যুক্তরাজ্যে অবস্থান করছেন তিনি। সৌদি আরবে বাদশা সউদ বিন আবদুল আজিজের আমন্ত্রণে রাজকীয় অতিথি হিসেবে খালেদা জিয়া ও তার পরিবারের সদস্যরা হজ করেন বলে দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

হজ শেষে গত শনিবার কাবা শরীফে বিদায়ী তাওয়াফ করে বিএনপি চেয়ারপারসনসহ পরিবারের  সদস্যরা জেদ্দা থেকে মদিনায় পৌঁছান। এরপর সেখানে হযরত মুহাম্মদ (সা.) রওজা জিয়ারত করেন তিনি। এবার তৃতীয় দফায় হজ করলেন খালেদা জিয়া। এর আগে ১৯৯১ সালে প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে এবং ১৯৯৭ সালে বিরোধী দলীয় নেত্রী থাকার থাকার সময় তিনি হজ করেন। তবে প্রায় প্রতিবছরই রোজার সময় সৌদি আরব গিয়ে উমরাহ করেন বিএনপি নেত্রী।

বিএনপি চেয়ারপারসনের সঙ্গে তার উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য এনামুল হক চৌধুরী, তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শরীফ শাহ কামাল তাজ, একান্ত সচিব আবদুস সাত্তার, আলোকচিত্রী নুরুউদ্দিন আহমেদ, গৃহকর্মী ফাতেমা বেগম হজ করেন। জোবাইদা রহমানের মা ইকবাল মান্দ বানু এবং বোন শাহিনা খান জামান বিন্দু ও তার স্বামী সৈয়দ শফিউজ্জামানও এবার হজ করেছেন।


মন্তব্য