kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


'হতদরিদ্রদের জন্য সরকার শিগগিরই পল্লী রেশনিং ব্যবস্থা চালু করবে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৭:০৪



'হতদরিদ্রদের জন্য সরকার শিগগিরই পল্লী রেশনিং ব্যবস্থা চালু করবে'

সরকার হতদরিদ্র এবং পঙ্গু ও প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীর জন্য শিগগিরই 'পল্লী রেশনিং' চালুর উদ্যোগ গ্রহণ করবে। যেখানে মাত্র ১০ টাকায় চাল ক্রয়ের সুযোগ থাকবে।


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ সকালে বিজিবি সদর দপ্তর পিলখানার ফজলুর রহমান খন্দকার মিলনায়তনে বিজিবি আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে 'সীমান্ত ব্যাংক' উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির ভাষণে এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, "আমরা খুব শিগগিরই পল্লী রেশনিং চালু করতে যাচ্ছি। সেখানে হতদরিদ্র ও পঙ্গু-প্রতিবন্ধীদের জন্য এই 'পল্লী রেশনিং' এর ব্যবস্থা করবো। এই রেশন কার্ড যাদের হাতে থাকবে মাত্র ১০ টাকায় তারা চাল কিনতে পারবেন। সে সুযোগটা আমরা সৃষ্টি করে দিচ্ছি। "

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশ্বমন্দার মধ্যেও আমাদের প্রবৃদ্ধি ৭ দশমিক ০৫ শতাংশে উন্নীত হয়েছে, যা বিশ্বের অনেক দেশই পারেনি। প্রবৃদ্ধি অর্জনে বিশ্বের প্রথম ৫টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান রয়েছে।

এই বিশাল আর্থসামাজিক উন্নয়ন আসলে কোনো ম্যাজিক নয়। বরং তাঁর জনগণের প্রতি কর্তব্যনিষ্ঠা, আন্তরিকতা ও পরিকল্পনামাফিক উন্নয়নের পদক্ষেপ বলেও প্রধানমন্ত্রী মন্তব্য করেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামন খান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মোজাম্মেল হক খান, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান সম্পর্কিত বিভাগের সচিব ইউনুসুর রহমান অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন। সীমান্ত ব্যাংকের চেয়ারম্যান এবং বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদ স্বাগত বক্তৃতা করেন।

মন্ত্রীবর্গ, সংসদ সদস্য, তিন বাহিনী প্রধান, ঢাবি উপাচার্যসহ উচ্চপদস্থ সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। এর আগে প্রধানমন্ত্রী প্রথম গ্রাহক হিসেবে নব প্রতিষ্ঠিত ব্যাংকটিতে একটি অ্যাকাউন্ট খোলেন।

অনুষ্ঠানে সীমান্ত ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং সিইও মোখলেসুর রহমান ব্যাংকটির ওপর একটি অডিও ভিজ্যুয়াল প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চিন্তাপ্রসূত এই বেসরকারি খাতের ব্যাংকটির যাত্রা শুরুর মাধমে বিজিবি সদস্যদের দীর্ঘদিনের একটি স্বপ্ন পূরণ হলো।

শেখ হাসিনা বলেন, আজকে বাংলাদেশের মানুষের খাদ্যাভাব নাই। আজকে বাংলাদেশের মানুষের খাদ্য নিরাপত্তাই শুধু আমরা নিশ্চিত করি নাই পঙ্গু, হতদরিদ্র, প্রতিবন্ধীদের আমরা বিনামূল্যে খাদ্য সরবরাহ করে যাচ্ছি।

 


মন্তব্য