kalerkantho


অবৈধ সম্পদ ও তথ্য গোপন

বাবরের বিরুদ্ধে ভূমি কর্মকর্তার সাক্ষ্য

আদালত প্রতিবেদক    

১৫ জানুয়ারি, ২০১৯ ১৫:৩০



বাবরের বিরুদ্ধে ভূমি কর্মকর্তার সাক্ষ্য

ফাইল ছবি

বিএনপি সরকারের আলোচিত স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জন ও সম্পদের হিসাব বিবরণীতে তথ্য গোপনের অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ হয়েছে। 

ঢাকার ৭ নম্বর বিশেষ জজ আদালতে মামলার বিচার চলছে। মঙ্গলবার এ মামলার ধার্য তারিখে চার্জশিটভুক্ত সাক্ষী ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা মো. আতাউর রহমান সাক্ষ্য দিতে আদালতে হাজির হন। সাক্ষী তার জবানবন্দি দেওয়ার পর বাবরের আইনজীবী তাকে জেরা করেন। 

সংশ্লিষ্ট বিচারক মো. শহিদুল ইসলাম সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে কার্যক্রম মূলতবি করে পরবর্তী সাক্ষির জন্য আগামি ১৪ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেন।  সাক্ষ্যগ্রহণের আগেই কারাগারে থাকা বাবরকে আদালতের এজলাসে হাজির করা হয়। এ নিয়ে মামলাটিতে ৬ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ হয়েছে।

২০০৮ সালের ১৩ জানুয়ারি রাজধানীর রমনা থানায় মামলাটি দায়ের করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তদন্ত শেষে একই বছর মামলায় অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করে দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক রূপক কুমার সাহান।

চার্জশিটে বলা হয়, সম্পদের হিসাব বিবরণীতে ছয় কোটি ৭৭ লাখ ৩১ হাজার ৩১২ টাকার সম্পদের হিসাব দাখিল করেছেন। এর প্রেক্ষিতে তদন্তকালে প্রাইম ব্যাংক ও এইচএসবিসি ব্যাংকে দুইটি ফিক্সড ডিপোজিট (এফডিআর) ছয় কোটি ৭৯ লাখ ৪৯ হাজার ২১৮ টাকা এবং বাড়ি নির্মাণ বাবদ ছাব্বিশ লাখ ৪২ হাজার ৬৭৮ টাকার তথ্য পাওয়া গেছে যা তিনি গোপন করেছেন। ওই হিসাবে আসামি অবৈধভাবে সাত কোটি ৫ লাখ ৯১ হাজার ৮৯৬ টাকা অর্জন করেছেন। 

প্রসঙ্গত, বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময়ে ২০০৭ সালের ২৮ মে বাবর যৌথবাহিনীর হাতে গ্রেপ্তার হন। এরপর থেকে তিনি কারাগারে আছেন। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগে মামলা রয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ২১’ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ে তাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে।



মন্তব্য