kalerkantho


সুন্দরবনে ২২ হরিণ শিকার

বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ নভেম্বর, ২০১৮ ০৩:০৭



বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ

সুন্দরবনের ২২টি হরিণ শিকারের ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। সাতক্ষীরার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটকে বিষয়টি তদন্ত করে আগামী তিন মাসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে সুন্দরবন সংরক্ষণে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে সংশ্লিষ্টদের প্রতি রুল জারি করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এসব নির্দেশনা দেন। সুন্দরবন এলাকার বাসিন্দা ও সাপ্তাহিক নয়াবার্তার সম্পাদক আবু বকরের জনস্বার্থে দায়ের করা একটি রিট আবেদনের ওপর প্রাথমিক শুনানি হয় গতকাল। রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট শামছুল হক। সরকার পক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু।

আদেশে আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্বরাষ্ট্রসচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক, কোস্ট গার্ডের মহাপরিচালক, প্রধান বন সংরক্ষক, সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, শ্যামনগর থানার ওসিসহ সংশ্লিষ্ট ১৬ জনকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

সুন্দরবন থেকে ২২টি হরিণ শিকারের ঘটনা গত ৯ জুলাই গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। পরে ওই এলাকার বাসিন্দা ও সাপ্তাহিক নয়াবার্তার সম্পাদক আবু বকর জনস্বার্থে হাইকোর্টে রিট করেন।



মন্তব্য