kalerkantho


হাইকোর্টের কার্যতালিকা থেকে আমীর খসরুর রিট বাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক    

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৭:২২



হাইকোর্টের কার্যতালিকা থেকে আমীর খসরুর রিট বাদ

আগামী ১০ সেপ্টেম্বর দুদকে হাজির হতে দেওয়া নোটিশ চ্যালেঞ্জ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমী খসরু মাহমুদ চৌধুরীর করা রিট আবেদন হাইকোর্টের কার্যতালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। আদালত আবেদনটি শুনতে অপারগতা প্রকাশ করায় তা কার্যতালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়। আজ বুধবার বিচারপতি বোরহানউদ্দিন ও বিচারপতি মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। 

গত ৩ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই রিট আবেদন দাখিল করা হয়। আজ তা শুনানির জন্য কার্যতালিকায় ছিল। 

আদালত সূত্রে জানা গেছে, এদিন রিট আবেদনকারীর পক্ষে আইনজীবী হিসেবে আদালতে উপস্থিত ছিলেন ব্যারিষ্টার মওদুদ আহমদ ও ব্যারিষ্টার আবদুল্লাহ আল মাহমুদ মাসুদ। অপরদিকে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান। আবেদনটি শুনানির জন্য উপস্থাপন করা হলে আদালত শুনতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এরপর তা কার্যতাালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়। 

প্রসঙ্গত, নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের যোগদানের বিষয়ে কুমিল্লার এক ব্যক্তির সঙ্গে আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর কথোপকথনের অডিও প্রকাশের পর  তার বিরুদ্ধে মামলা করে পুলিশ। এরপরে তাকে গ্রেপ্তার করতে না পারলেও কুমিল্লার ওই ব্যক্তিকে (যার সেঙ্গ টেলিফোনে কথা বলেছিলেন আমীর খসরম্ন মাহমুদ চৌধুরী) আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এর প্রেক্ষাপটে দুদক আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে তলব করে গত ১৬ আগষ্ট নোটিশ দেয়। 

নোটিশে বলা হয়, বেনামে পাঁচ তারকা হোটেল ব্যবসা, ব্যাংকে কোটি কোটি টাকার অবৈধ লেনদেনসহ মানি লন্ডারিং করে বিভিন্ন দেশে অর্থ পাচারের অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। এছাড়া স্ত্রী ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যসহ নিজ নামে শেয়ার কেনাসহ জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগও অনুসন্ধান করা হচ্ছে। এ বিষয়ে আগামী ১০ সেপ্টেম্বর দুদকে হাজির হয়ে বক্তব্য দিতে বলা হয়। এরইমধ্যে এক মাস সময় চেয়ে দুদকে আবেদন করেছেন বিএনপি নেতা। এ অবস্থায় দুদকের নোটিশ চ্যালেঞ্জ করে রিট আবেদন করেন তিনি।

এর আগে দুই মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়েছেন আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

 



মন্তব্য