kalerkantho


নিরাপদ সড়ক আন্দোলন

তিন দিনের রিমান্ডে ইডেনের ছাত্রী লুমা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ আগস্ট, ২০১৮ ১১:২৭



তিন দিনের রিমান্ডে ইডেনের ছাত্রী লুমা

নিরাপদ সড়কের দাবিতে গড়ে ওঠা আন্দোলনের সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়িয়ে উসকানির অভিযোগে গ্রেপ্তার ইডেন কলেজের ছাত্রী লুত্ফুন্নাহার লুমা ওরফে নীলাকে তিন দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত তাঁকে রিমান্ডে নেওয়ার আদেশ দেন। এর আগে দুপুরের পর পুলিশের সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম বিভাগ কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের পরিদর্শক মো. রফিকুল ইসলাম (তদন্ত কর্মকর্তা) লুমাকে আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। বিকেলে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট কাজী কামরুল ইসলামের আদালতে শুনানি হয়। আদালত তাঁর জামিন নামঞ্জুর করে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

আদালত আদেশে উল্লেখ করেন, রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের সময় নারী পুলিশ উপস্থিত থাকবেন। সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের নির্দেশনা অনুযায়ী জিজ্ঞাসাবাদেরও নির্দেশ দেন আদালত। গত বুধবার ভোরে সিরাজগঞ্জের বেলকুচির খিদ্রচাপাড়া এলাকা থেকে লুমাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাঁকে ঢাকায় রমনা থানায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ৫৭(২) ও ৬৬ ধারায় দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়। লুমা ইডেন কলেজের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, গোপন তদন্তে জানা যায় যে লুমা সক্রিয়ভাবে রাষ্ট্রবিরোধী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে সম্পৃক্ত আছেন। তাঁকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করলে তাঁর সহযোগীদের শনাক্ত, অপপ্রচার বন্ধ ও মামলার প্রকৃত রহস্য উদ্ঘাটন করা সম্ভব হবে। এদিকে লুমার পক্ষে তাঁর আইনজীবী জায়েদুর রহমান জাহিদ রিমান্ড আবেদন বাতিল করে জামিনের আবেদন করেন। এ সময় তদন্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তিনি জামিনের বিরোধিতা করে রিমান্ডে দেওয়ার আবেদন জানান।

আদালতে লুমার মা রাশিদা বেগম তাঁর আরেক মেয়েকে নিয়ে উপস্থিত ছিলেন। আদালতে তাঁকে কাঁদতে দেখা গেছে।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১২ ছাত্রের জামিন নামঞ্জুর : পুলিশের ওপর হামলা, সরকারি কাজে বাধা ও গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগে দায়ের করা দুই মামলায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১২ ছাত্রের জামিন নামঞ্জুর করা হয়েছে। গতকাল ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত আলাদা তিনটি আদেশে জামিন নামঞ্জুর করেন। এর আগেও কয়েকজন ছাত্রের জামিন নামঞ্জুর হয়।

গতকাল যাঁদের জামিন নামঞ্জুর হয়েছে তাঁরা হলেন রাশেদুল ইসলাম, মুসফিকুর রহমান, এমডি হাসান, রেদোয়ান আহমেদ, রেজা রেফাত আহমেদ, সীমান্ত সরকার ও ইফতেখার হোসেন। তাঁরা বাড্ডা থানায় দায়ের করা মামলার আসামি। সাবের আহমেদ উল্লাস, শিহাব শাহরিয়ার, সাখাওয়াত হোসেন নিঝুম ও আজিজুল করিম অন্তর ভাটারা থানায় দায়ের করা মামলার আসামি। আলাদা দুটি জামিন আবেদনের ওপর গতকাল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট লস্কর সোহেল রানার আদালতে শুনানি হয়। আদালত জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করেন।

অন্যদিকে বাড্ডা থানার মামলার আরেক আসামি মাদাস বিন মর্তুজার জামিনের জন্য বিশেষ আবেদন করা হলে তা অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট কেশব রায় চৌধুরীর আদালতে শুনানির জন্য ছিল। গতকাল মর্তুজাকে আদালতে হাজির করা হয়। আসামি শারীরিকভাবে অসুস্থ বিবেচনায় জামিন চাইলে আদালত নামঞ্জুর করেন। 



মন্তব্য