kalerkantho


নিম্ন আদালতের প্রতি উচ্চ আদালতের নির্দেশনা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ জুন, ২০১৮ ১৪:৩৫



নিম্ন আদালতের প্রতি উচ্চ আদালতের নির্দেশনা

নিম্ন আদালতের বিচারকদের জন্য ১৫ দফা নীতিমালা দিয়েছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি মো. রেজাউল হক ও বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই নির্দেশনা দেন। গাইবান্ধার দায়রা আদালতের একটি সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করা রায়ে এসব নির্দেশনা দেন তারা। আজ সোমবার ১৫ দফা নীতিমালা দেওয়ার বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন সুপ্রিম কোর্টের স্পেশাল অফিসার মোহাম্মদ সাইফুর রহমান। বিচার বিভাগীয় অনুসন্ধান ও এ সংক্রান্ত মামলা সঠিকভাবে পরিচালনায় বিচার বিভাগীয় অনুসন্ধানকারী হাকিম, আমলে গ্রহণকারী হাকিম ও দায়রা আদালতের জজদের প্রতি এ নীতিমালা পালন করতে বলা হয়েছে।

বিচারিক আদেশ সঠিকভাবে যাতে দিতে, রিভিশনাল ম্যাটার ও বিবিধ বিষয়ের ক্ষেত্রে বিচার বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ কর্মঘণ্টা বাঁচাতে এবং বিচার বিভাগের শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখার প্রত্যাশায় এ গাইডলাইন দেওয়া হয়। রায়ে দেওয়া গাইডলাইন সম্পর্কে জানাতে গাইবান্ধার জেলা ও দায়রা জজকে ১৫ দিনের মধ্যে ওই জেলার আদালতের সব বিচারক এবং ম্যাজিস্ট্রেটকে (হাকিম) নিয়ে একটি বিচার বিভাগীয় সম্মেলন করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এদিকে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলকে এ নীতিমালা সংবলিত রায়ের কপি সব জেলা জজ, মহানগর ও দায়রা জজদের মাঝে বিতরণ করতে অথবা ওয়েবসাইটে প্রকাশের মাধ্যমে জানানোর ব্যবস্থা করতে বলা হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, দায়রা আদালতের বিচারকদের ফৌজদারি রিভিশনের ক্ষমতা প্রয়োগের ক্ষেত্রে অধীনস্ত আদালতের রায় পুনর্বিবেচনায় শুধু সম্মত বা অসম্মত উল্লেখ করেই দায়িত্ব শেষ করা যাবে না, সংশ্লিষ্ট মামলার বিষয়বস্তুর সঙ্গে জড়িত আইনগত প্রশ্নের গভীরে ঢুকে অনুসন্ধান এবং তার পর তাদের মেধা ও দক্ষতা অনুযায়ী নিজস্ব মতামতের প্রতিফলন ঘটাতে তারা কাঠামোগতভাবেই বাধ্য, তাদের অবশ্যই বিচারিক মনোভাবসম্পন্ন হতে হবে এবং যেকোনো আদেশের বিরুদ্ধে দায়ের করা রিভিশনাল বিষয়সমূহ দ্রুত নিষ্পত্তি করতে হবে। উপরন্তু তাদের দায়িত্ব পালনে আরো সিরিয়াস হতে হবে, সৎ, মেধাবী, সজাগ এবং দক্ষ অফিসারদের দ্বারা পরিচালনার মাধ্যমে বিচার বিভাগকে রাষ্ট্রের সবচেয়ে গতিশীল ও দেশপ্রেমী অঙ্গ হিসেবে জনগণের স্বীকৃতি আদায়ে তাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করতে হবে, মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) এবং মুখ্য বিচারিক হাকিমের (সিজেএম) সহযোগিতায় সব বিচারক এবং হাকিমদের নিয়ে জেলা/মহানগর দায়রা জজের অফিসে মাসে কমপক্ষে একবার জুডিশিয়াল কনফারেন্স (বিচারিক সম্মেলন) করতে হবে।

 



মন্তব্য