kalerkantho


রংপুরে খাদেম হত্যা মামলায় ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ মার্চ, ২০১৮ ১২:৪৯



রংপুরে খাদেম হত্যা মামলায় ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড

রংপুরের কাউনিয়ায় মাজারের খাদেম রহমত আলী

রংপুরের কাউনিয়ায় মাজারের খাদেম রহমত আলী হত্যা মামলায় জেএমবির ৭ জঙ্গির মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। রোববার দুপুর ১২টার দিকে রংপুরের বিশেষ জজ আদালতের বিচারক নরেশ চন্দ্র সরকার এ আদেশ দেন। এই হত্যা মামলায় ৬ জন খালাস দেওয়া হয়েছে।

২০১৫ সালের ১০ নভেম্বর রাতে রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের চৈতার মোড়ে মাজারের খাদেম রহমত আলীর ওপর দুর্বৃত্তরা হামলা চালায়। এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও গলা কেটে রহমত আলীকে হত্যা করে তারা।

এ ঘটনায় নিহত খাদেমের ছেলে শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেন।

যাদের মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে তারা হলেন- জেএমবির আঞ্চলিক কমান্ডার রংপুরের পীরগাছা উপজেলার পশুয়া টাঙ্গাইলপাড়ার মাসুদ রানা ওরফে মামুন ওরফে মন্ত্রী (৩৩), একই এলাকার জেএমবি সদস্য ইছাহাক আলী (৩৪), লিটন মিয়া ওরফে রফিক (৩২), গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার হলদিয়ার চরের সাখাওয়াত হোসেন ওরফে রাহুল (৩০), দিনাজপুরের বিরামপুরের সরোয়ার হোসেন সাবু ওরফে মিজান (৩৩), বিজয় ওরফে আলী ওরফে দর্জি (৩০) এবং রংপুরের পীরগাছার পলাতক জেএমবি সদস্য চাঁন্দু মিয়া (২০)।   

যাদের খালাস দেওয়া হয়েছে তারা হলেন- জাহাঙ্গীর হোসেন ওরফে রাজীব গান্ধী (২৬), গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের সাদাত ওরফে রতন মিয়া (২৩) ও তৌফিকুল ইসলাম সবুজ (৩৫), আবু সাঈদ (৩০), বাবুল আখতার ওরফে বাবুল মাস্টার (৩৫) এবং বগুড়ার শাজাহানপুরের পলাতক রাজিবুল ইসলাম মোল্লা ওরফে বাদল ওরফে বাঁধন (২৫)।

গত বছরের ৩ জুলাই আদালতে ১৩ জনকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। এর মধ্যে দুজন পলাতক। তারা হলো নজিবুল ইসলাম ও চান্দু মিয়া। তাদের মধ্যে মাসুদ রানা, এছাহাক আলী, লিটন মিয়া ও সাখাওয়াত হোসেন চাঞ্চল্যকর জাপানি নাগরিক কুনিও হোশি হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি।


মন্তব্য