kalerkantho


নির্দেশ সত্ত্বেও মামলার নিষ্পত্তি হয়নি

আপিল বিভাগে ক্ষমা চাইলেন যুগ্ম জেলা জজ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০৫:১১



আপিল বিভাগে ক্ষমা চাইলেন যুগ্ম জেলা জজ

তিতাস গ্যাসের বিল নিয়ে সৃষ্ট মামলা ১১ বছরেও নিষ্পত্তি না হওয়ায় নারায়ণগঞ্জের একজন যুগ্ম জেলা জজ গতকাল মঙ্গলবার দেশের সর্বোচ্চ আদালত আপিল বিভাগে হাজির হয়ে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়েছেন। আদালত তাঁকে ক্ষমা করে দিয়ে দুই মাসের মধ্যে মামলাটি নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বিভাগ গতকাল এই আদেশ দেন। গত ৭ ফেব্রুয়ারি আপিল বিভাগ এক আদেশে সংশ্লিষ্ট মামলার নথিসহ নারায়ণগঞ্জের যুগ্ম জেলা জজকে (অতিরিক্ত আদালত, নারায়ণগঞ্জ) হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন। তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কম্পানি লিমিটেডের একটি আপিলের শুনানিকালে এই আদেশ দিয়েছিলেন আদালত। গতকাল আদালতে তিতাসের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন ও মো. আবদুর রহিম। অন্য পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট আবদুল বাসেত মজুমদার ও কামাল উল আলম।

তিতাসের দাবি করা ১২ মাসের বিল অবৈধ ঘোষণা চেয়ে মেসার্স এমএকিউ পেপার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড ২০০৬ সালে নারায়ণগঞ্জের যুগ্ম জেলা জজ (অতিরিক্ত আদালত, নারায়ণগঞ্জ) আদালতে মামলা করে। এই মামলায় প্রতি মাসে তিন লাখ টাকা করে বিল পরিশোধের আবেদন করা হয়। আদালত ২০০৭ সালের ১৫ মার্চ আবেদনটি খারিজ করে দেন। এই আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করে এমএকিউ পেপার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড।

হাইকোর্ট ২০০৮ সালের ৪ জুলাই এক রায়ে প্রতিষ্ঠানটিকে প্রতি মাসে বকেয়া থেকে ১৭ লাখ টাকা করে এবং নিয়মিত বিলের সাড়ে সাত লাখ টাকা করে পরিশোধের নির্দেশ দেন। একই সঙ্গে নম্নি আদালতকে যেৌক্তিক সময়ের মধ্যে মামলাটি নিষ্পত্তি করতে বলা হয়। হাইকোর্টের এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করে তিতাস। এই আপিলের শুনানিকালে জানা যায়, নম্নি আদালতে মামলাটি এখনো নিষ্পত্তি হয়নি। এ অবস্থায় আপিল বিভাগ সংশি্লষ্ট বিচারককে তলব করেন।



মন্তব্য