kalerkantho


ব্লগার অভিজিৎ হত্যা মামলা

তদন্ত প্রতিবেদন দিতে সময় চেয়েছে পুলিশ

আদালত প্রতিবেদক   

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ২২:৫৯



তদন্ত প্রতিবেদন দিতে সময় চেয়েছে পুলিশ

বিজ্ঞান মনস্ক লেখক এবং মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা অভিজিৎ রায় হত্যা মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে অবারও সময় চেয়েছে পুলিশ। এর প্রেক্ষিতে আগামী ১৫ মার্চ পরবর্তী দিন ধার্য করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার মামলার প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিন ধার্য ছিল। কোন প্রতিবেদন দাখিল না করে সময় চাওয়ার প্রেক্ষিতে ঢাকার মহানগর হাকিম আহসান হাবিব ফের এই দিন ধার্য করেন। 

এর আগে এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের সহকারি কমিশনার (এসি) ফজলুর রহমান প্রতিবেদন দাখিল করতে সময় চেয়ে আদালতে আবেদন দেয়। 

নথিদৃষ্টে দেখা গেছে, এ মামলায় এখন পর্যন্ত আনসারউল্লাহ বাংলা টিমের মোট ১০ জন গ্রেপ্তার হয়েছেন। এরা হলেন- জাফরান হাসান, শফিউর রহমান ফারাবী, তৌহিদুর রহমান, সাদেক আলী, আবুল বাশার, আমিনুল ইসলাম, মান্না ইয়াহি ওরফে রাহী ও অপারেশন শাখার সদস্য মো. আরাফাত রহমান ওরফে সিয়াম ওরফে সাজ্জাদ, আবু সাকিব ওরফে সোহেল ও মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন। শেষের দুইজন গত বছরের ৬ নভেম্বর এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছে। অন্যরা বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ড শেষে কারাগারে আছে। 

এছাড়া এ হত্যাকাণ্ডের ‘প্রধান সন্দেহভাজন’ মুকুল রানা ওরফে শরিফুল গত বছরের ১৯ জুন খিলগাঁওয়ে  পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন।

প্রসঙ্গত, পদার্থবিদ অধ্যাপক অজয় রায়ের ছেলে নিহত অভিজিৎ থাকতেন যুক্তরাষ্ট্রে। তিনি মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা ও লেখক। তাঁর লেখা নয়টি বই রয়েছে। জঙ্গিদের হুমকির মুখেও বইমেলা অংশ নিতে দেশে এসেছিলেন তিনি। ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি রাতে একুশে বইমেলা চলাকালে বাংলা একাডেমি থেকে বের হওয়ার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির কাছে ফুটপাতে কুপিয়ে হত্যা করা হয় অভিজিৎ রায়কে। ওই সময় তার সঙ্গে থাকা স্ত্রী বন্যা আহমেদও হামলার শিকার হয়ে একটি আঙুল হারান। এ ঘটনার পরদিন নিহতের বাবা বাদী হয়ে শাহবাগ থানায় হত্যা মামলাটি করেন।



মন্তব্য