kalerkantho


গৃহবধূ শাম্মীর লাশের ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসককে তলব

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ নভেম্বর, ২০১৭ ১৩:০২



গৃহবধূ শাম্মীর লাশের ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসককে তলব

তদন্তে গাফিলতির অভিযোগে হত্যার শিকার গৃহবধূ শাম্মীর লাশের ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক ডা. সোহেল মাহমুদকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। ৩ ডিসেম্বর তাকে স্বশরীরে আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে।

মামলার কেস ডকেট (সিডি) পর্যালোচনা করে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও সহিদুল করিমের ডিভিশন বেঞ্চ আজ মঙ্গলবার এ আদেশ দেন। এ সময় রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ফরহাদ হোসেন ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল ইউসুফ মাহমুদ মোর্শেদ উপস্থিত ছিলেন।

আরো পড়ুন.............

এর আগে দেওয়া তলব আদেশে আজ আদালতে হাজির হন শাম্মী হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নওশের আলী। তাকে উদ্দেশ করে আদালত বলেন, যথাযথভাবে তদন্ত করেন না বলেই জনমনে সন্দেহের সৃষ্টি হয়। যার কারণে এই মামলা নিয়ে গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। এরপর আদালত ৩ ডিসেম্বর পরবর্তী আদেশের জন্য দিন ধার্য রেখে ওই দিনও নওশের আলীকে হাইকোর্টে হাজির থাকতে বলেন।

গত ৭ জুন রাতে রাজধানীর কল্যাণপুরে ভাড়া বাসায় একটি বায়িং হাউসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন টিটু তার স্ত্রী শামিমা লাইলা আরজুমান্না খান শাম্মীকে অমানবিক নির্যাতন করে হত্যা করে। পরে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় নিহতের ছোট ভাই মো. ফরহাদ হোসেন বাদী হয়ে পরদিন মিরপুর মডেল থানায় মামলা করেন।

পরে পুলিশ ঘাতক স্বামী আলমগীর ও তার তৃতীয় স্ত্রী ইসরাত জাহান মুক্তাকে গ্রেপ্তার করে।

আরো পড়ুন.............

মামলার বাদী বলেন, ঢাকায় অবস্থানরত আসামির ধনাঢ্য ভগ্নিপতি মো. আবদুল বাছেদ অর্থের মাধ্যমে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পরিবর্তন এবং মামলাটি ভিন্ন খাতে প্রবাহে কাজ করছেন। এ পর্যায়ে আদালত বলেন, ফৌজদারি মোশন শুনানির এখতিয়ার রয়েছে এই আদালতের। আমরা এ পর্যায়ে প্রতিবেদনের ওপর সুয়োমটো আদেশ দিতে পারব কি? জবাবে দুদক কৌঁসুলি বলেন, ফৌজদারি কার্যবিধির ৪৩৯ ধারা মোতাবেক এবং আপিল বিভাগের রায় অনুযায়ী আপনাদের স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে আদেশ দেওয়ার এখতিয়ার রয়েছে। এরপরই হাইকোর্ট মামলার তদন্ত কর্মকর্তাতে তলব করেন।

 


মন্তব্য