kalerkantho


জামিন পেলেন সাকা পুত্র হুম্মাম

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ মার্চ, ২০১৭ ০৫:১৫



জামিন পেলেন সাকা পুত্র হুম্মাম

মানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়া বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ছেলে হুমাম কাদের চৌধুরী রায় ফাঁসের মামলায় আত্মসমর্পণ করে জামিন পেয়েছেন। গত আগস্টে এই মামলায় আদালতে হাজিরা দেওয়ার পর তিনি নিখোঁজ হন এবং সাত মাস পর সম্প্রতি তিনি ঘরে ফিরেছেন।

গতকাল বুধবার ঢাকা মহানগর হাকিম মাহমুদুল হাসানের আদালতে হাজিরা দেন হুম্মাম কাদের। এ সময় শুনানি শেষে তার জামিন আবেদন গ্রহণ করেন বিচারক।

সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর রায় ফাঁসের মামলায় ২০১৬ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনালের বিচারক কে এম শামসুল আলম এই মামলার আসামি সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর স্ত্রী ফারহাত কাদের চৌধুরী এবং ছেলে হুম্মাক কাদের চৌধুরীকে বেকসুর খালাস দেন। তবে তাদের আইনজীবী ফখরুল ইসলামসহ পাঁচ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেন।

ফখরুল ওই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করলে হাইকোটের একটি বেঞ্চ ২০১৬ সালের ২২ নভেম্বর স্বপ্রণোদিত হয়ে রুল জারি করে। রুলে সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর স্ত্রী ও ছেলের খালাসের রায় কেন বাতিল হবে না তা জানতে চাওয়া হয়। একইসঙ্গে আদালত চার সপ্তাহের মধ্যে রাষ্ট্রপক্ষকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়। আদেশের অনুলিপি হাতে পাওয়ার ছয় সপ্তাহের মধ্যে সাকাপত্নী ফারহাত কাদের চৌধুরী ও ছেলে হুম্মাম কাদের চৌধুরীকে আত্মসমর্পণ করতে নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট। ওই নির্দেশ অনুযায়ী হুম্মাম আজ বুধবার আত্মসমর্পণ করেন।

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় ২০১৩ সালের ১ অক্টোবর বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন কাদেরকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেয় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১। তবে রায় ঘোষণার একদিন আগেই সাকা চৌধুরীর স্ত্রী ও তার পরিবারের সদস্য এবং আইনজীবীরা রায় ফাঁসের অভিযোগ তোলেন। তারা রায়ের খসড়া কপি সংবাদকর্মীদের দেখান।

পরে ট্রাইব্যুনালের রেজিস্ট্রার একেএম নাসির উদ্দিন মাহমুদ বাদী হয়ে ওই বছর ২ অক্টোবর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে শাহবাগ থানায় একটি মামলা করেন।

গত ৫ আগস্ট এই মামলায় হাজিরা দেওয়ার পর থেকে নিখোঁজ ছিলেন হুম্মাম কাদের। বিএনপি এবং সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর পরিবার থেকে অভিযোগ করা হচ্ছিল, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীই তাকে তুলে নিয়েছে। তবে তারা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।  

গত ১ মার্চ গভীর রাতে হুম্মাম তার ধানমন্ডির বাসায় ফেরেন। এই কয়দিন তিনি কোথায় ছিলেন-সে প্রশ্নের কোনো সুরাহা হয়নি এখনও। হুম্মামের পরিবারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কিছু বলা হয়নি। তার চাচা গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরী গণমাধ্যমকে বলেন, এই সাত মাস হুম্মাম কোথায় ছিলেন তা তিনি ভুলে গেছেন।


মন্তব্য