kalerkantho


এক দশক কারাগারে বন্দি তিনজনের জামিন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৭:৩৭



এক দশক কারাগারে বন্দি তিনজনের জামিন

বিচারের দীর্ঘসূত্রিতায় এক দশকেরও বেশি সময় ধরে কারাবন্দি তিনজনকে জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি তাদের বিরুদ্ধে থাকা মামলার বিচারকার্য তিন মাসের মধ্যে শেষ করতে বিচারিক আদালতকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বিচারকার্য শেষ না হওয়া পর্যন্ত তারা জামিনে থাকবেন। আজ সোমবার বিচারপতি এ কে এম আব্দুল হাকিম ও এস এম মজিবুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

জামিন পাওয়া তিনজন হলেন- আসাদুল ওরফে আছা মিয়া, মো. দানা মিয়া (৫৫) ও সাজু মিয়া (৪৫)।

আদালত সূত্র জানায়, ২০০৬ সাল থেকে মো. দানা মিয়া সিলেট জেলা কারাগারে, আসাদুল ওরফে আছা সাতক্ষীরা জেলা কারাগারে ও সাজু মিয়া নরসিংদী জেলা কারাগারে বন্দি থাকেন। এক দশকেরও বেশি সময় ধরে কারাগারে বন্দি এই তিনজনসহ আট আসামির তথ্য গত ১৪ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টে উপস্থাপন করেন সুপ্রিম কোর্টের লিগ্যাল এইড কমিটির প্যানেল আইনজীবী চঞ্চল কুমার বিশ্বাস। ওইদিনই বিচারপতি এ কে এম আব্দুল হাকিম ও এস এম মজিবুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ স্বপ্রণোদিত হয়ে আট বন্দিকে কেন জামিন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন।  

এ ছাড়াও তাদের বিরুদ্ধে থাকা মামলার নথি তলবের পাশাপাশি ওই আট আসামিকে আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টে হাজির করার নির্দেশ দেওয়া হয়। নির্দেশনা অনুযায়ী, আজ সোমবার সাতজনকে আদালতে হাজির করা হলে আদালত এই তিনজনকে জামিন দেন।  

ওই সাতজনের পক্ষে আদালতে শুনানিতে অংশ নেন আইনজীবী চঞ্চল কুমার বিশ্বাস।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “আটজনের মধ্যে তকদীর মিয়া বাদে সাতজনকে আজ আদালতে হাজির করা হলে আদালত তিনজনকে জামিন দিয়েছেন। তকদীর মিয়া গত ১৯ জানুয়ারি থেকে জামিনে আছেন। ”

আইনজীবী চঞ্চল কুমার আরো বলেন, “আর সাব্বির আহমেদ নামের একজনের নথি আসেনি। এছাড়া মো. জালাল ও অসীম হালদার নামের দুজন মানসিকভাবে অসুস্থ বলে জানা গেছে। ”

এ ছাড়াও গত ১৪ ফেব্রুয়ারি সাইফুল আলম নামের একজনের সাজার রায় প্রদান করা হয়েছে। তকদীর ও সাইফুলের ব্যাপারে হাইকোর্ট কোনো আদেশ দেয়নি।


মন্তব্য