kalerkantho


ঢাকা বারের নির্বাচন শেষে ভোট গননা চলছে

আদালত প্রতিবেদক   

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২২:৩৪



ঢাকা বারের নির্বাচন শেষে ভোট গননা চলছে

ঢাকা আইনজীবী সমিতি (বার) ২০১৭-১৮ কার্যনির্বাহী পরিষদের নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত নীল প্যানেলের প্রার্থীরা সংখ্যাগরিষ্ঠভাবে এগিয়ে আছে। সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক পদসহ সম্পাদকীয় আটটি পদ ছাড়াও এগারোটি সদস্য পদে সাদা প্যানেলের প্রার্থীরা পিছিয়ে পড়েছে।

 

নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত আইনজীবীদের সাদা প্যানেল ও বিএনপি সমর্থিত আইনজীবীদের নীল প্যানেল থেকে লড়ছেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত নীল প্যানেলের সভাপতি প্রার্থীর চেয়ে সাড়ে চারশ ভোটে পিছিয়ে আছেন সাদা প্যানেলের প্রার্থী। সাধারন সম্পাদক পদে সাদা প্যানেলের প্রার্থী পাঁচশ ভোটে পিছিয়ে আছেন। সম্পাদকীয় বারোটি পদের ৮ টিতে এবং পনেরোটি সদস্য পদের ১১ টিতে নীল প্যানেলের প্রাথীরা এগিয়ে রয়েছেন। সমিতির কার্যকরী পরিষদে মোট ২৭টি পদে নির্বাচন হচ্ছে। এর মধ্যে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ১২টি সম্পাদকীয় এবং ১৫টি কার্যনির্বাহী সদস্য পদ। দুই প্যানেলে ৫৪ জন প্রার্থী হয়েছেন। স্বতন্ত্র থেকে নির্বাচন করছেন দুইজন।  

আজ শুক্রবার ভোট গননা চলা অবস্থায় রাত সাড়ে নয়টায় প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনের দেয়া তথ্যমতে প্রায় সাতহাজার ভোট গননা হয়েছে।

চুড়ান্ত ফলাফল পেতে রাত দুইটা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। দুই দিনব্যাপি মধ্যাহ্ন বিরতির এক ঘন্টা বিরতি দিয়ে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত শান্তিপুর্নভাবে ভোট গ্রহণ চলে। এবার সমিতির মোট ভোটার সংখ্যা ষোল হাজার ১৯৭ জন। ভোট দিয়েছেন মোট আট হাজার ৯১০ জন। প্রথম দিনে ভোট পড়েছে তিন হাজার ৫১৮টি। শেষের দিন পাঁচ হাজার ৩৯২ ভোট গ্রহন হয়েছে। অপ্রীতিকর কোন ঘটনা ঘটেনি।  

এবার সমিতির নির্বাচন পরিচালনার জন্য প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে খোন্দকার আবদুল মান্নান দায়িত্ব পালন করছেন। সর্বিক কার্যক্রম পরিচালনায় ১৯ জন নির্বাচন কমিশনার এবং ১৮১ জন সদস্য তাকে সহায়তা করেছেন। বুধ ও বৃহস্পতিবার ভোট গ্রহনের পর ভোটের ব্যালট সিলগালা করে রেখে দেয়া হয়। আজ সকাল ৯ টা থেকে শুরু করে প্রাক বাছাইপর্ব শেষে বেলা আড়াইটা থেকে মূল গননা আরম্ভ হয়। এরপর থেকে গননা চলছে। নির্বাচনে সভাপতি পদপ্রার্থীদের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে সাদা প্যানেলের আবদুর রহমান হাওলাদার বলেন, নির্বাচনে জয়লাভ করলে সমিতি ও আইনজীবীদের কল্যাণে কাজ করবেন।  

একই পদে নীল দলের প্রার্থী মো. খোরশেদ আলম বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠ ও সুন্দর হয়েছে। জয়ের ব্যাপারে তিনিও আশাবাদী। সুষ্ঠু ও সুন্দর নির্বাচন অনুষ্ঠান উপহার দেওয়ার জন্য উভয় প্রার্থীই আইনজীবী ও নির্বাচন কমিশনারদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। এছাড়া নীল প্যানেলে সাধারন সম্পাদক পদে প্রার্থী হলেন আজিজুল ইসলাম খান বাচ্চু। সাদা পানেলের প্রার্থী আয়ুবুর রহমান।  


মন্তব্য