kalerkantho


মুক্তিযোদ্ধার বয়স নির্ধারণের সিদ্ধান্ত নিয়ে হাইকোর্টের রুল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২১:৪৩



মুক্তিযোদ্ধার বয়স নির্ধারণের সিদ্ধান্ত নিয়ে হাইকোর্টের রুল

মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে নতুনভাবে অন্তর্ভুক্তির ক্ষেত্রে ন‌্যূনতম বয়স ১৩ বছর নির্ধারণের সিদ্ধান্ত কেন বাতিল ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়েছে হাইকোর্ট। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, জাতীয় মুক্তিযুদ্ধ কাউন্সিলের চেয়ারম্যান, গাজীপুর জেলা প্রশাসকসহ ছয় বিবাদীকে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। আজ বুধবার এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি করে বিচারপতি কাজী রেজাউল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর হাইকোর্ট বেঞ্চ  এ আদেশ দেয়।  

রিট আবেদনকারীদের পক্ষে শুনানি করেন ইউনুছ আলী আকন্দ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তাপস কুমার বিশ্বাস।

ইউনুছ আলী আকন্দ বলেন, গত বছরের ১০ নভেম্বর মুক্তিযোদ্ধার সংজ্ঞা ও বয়স নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি করে মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়। এর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে গাজীপুরের মুক্তিযোদ্ধা এইচ এম কামরুজ্জামান, মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ কায়সার ও শেখ আজিজুল হক মঙ্গলবার হাইকার্টে এই রিট আবেদন করেন।

উল্লেখ্য, গত বছরের শেষে মুক্তিযোদ্ধার সংজ্ঞা ও বয়স নির্ধারণ করে সরকারের জারি করা প্রজ্ঞাপনের ২ নম্বর ধারায় বলা হয়, “বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বাধীনতার ঘোষণায় সাড়া দিয়ে ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ থেকে ওই বছরের ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত যেসব ব্যক্তি বাংলাদেশের স্বাধীনতার লক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছেন তারা মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে গণ্য হবেন। "

ওই ধারায় আরো বলা হয়, “মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে নতুনভাবে অন্তর্ভুক্তির ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধার বয়স ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ তারিখে ন্যূনতম ১৩ বছর হতে হবে। ”


মন্তব্য