kalerkantho


গৃহকর্মীদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় মনিটারিং সেল গঠনে হাইকোর্টের নির্দেশ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৯:৪৭



গৃহকর্মীদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় মনিটারিং সেল গঠনে হাইকোর্টের নির্দেশ

গৃহকর্মীদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সারাদেশে মনিটারিং সেল গঠনে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।
বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী এবং বিচারপতি কাজী মো. ইজহারুল হক আকন্দ সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টর একটি ডিভিশন বেঞ্চ আজ বৃহস্পতিবার এ আদেশ দেয়।

আগামী ৬ মাসের মধ্যে সিটি কর্পোরেশন এবং শ্রম মন্ত্রণালয়, জেলা প্রশাসক (ডিসি) এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে (ইউএনও) এ মনিটারিং সেল গঠন করতে বলেছে আদালত। একইসঙ্গে সরকার কতৃক তৈরি নীতিমালার বিধান বাস্তবায়নেরও নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
রিট আবেদনের পক্ষে আদালতে শুনানি করেন এডভোকেট মনজিল মোরসেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল অরবিন্দ কুমার রায়।  
মনজিল মরসেদ সাংবাদিকদের জানান,মনিটারিং সেলে বিভিন্ন অভিযোগ দায়ের করা যাবে। এই মনিটারিং সেল নীতিমালা বাস্তবায়ন হচ্ছে কিনা, গৃহকর্মীদের কি কি সমস্যা হচ্ছে তা দেখবে এই মনিটারিং সেল। তিনি বলেন, বাংলাদেশে ঘরে ঘরে লাখ লাখ গৃহকর্মী কাজ করে। তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য কোনো আইন ছিল না। বিভিন্নভাবে তাদের মানবাধিকার লঙ্ঘণ হচ্ছিল। এজন্য আমরা রিট দায়ের করেছিলাম। আদালত ওই রিট শুনে গৃহকর্মীদের নির্যাতন বন্ধে কেন আইন তৈরির নির্দেশ দেয়া হবে না- বিষয়ে রুল জারি করেছিলো। ওই রুলের ওপর আজ শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। এক্ষেত্রে আমরা একটা সম্পূরক আবেদন করি যে, এ বিষয়ে ২০১৬ সালে সরকার একটি নীতিমালা তৈরি করেছে। ঐ নীতিমালায় কতগুলো গাইড লাইন দেয়া হয়েছে।  
নীতিমালার বিষয়ে তিনি জানান, ১২ বছরের নিচে কোনো শিশুকে গৃহকর্মী নিয়োগ করা হলে সেক্ষেত্রে যে তার পরিবারের কনর্সান নেওয়া হয়। যদি কেউ নির্যাতন করে তার বিরুদ্ধে থানা ব্যবস্থা নিবে। থানা যাতে ব্যবস্থা নেই সে বিষয়ে মন্ত্রণালয়কে বলেছে, সে বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে। প্রত্যেকটা সিটি করপোরেশনকে বলেছে, গৃহকর্মীদের একটি যথাযথ তালিকা তৈরি করতে। যাতে স্ব-স্ব এলাকায় কারা কারা গৃহকর্মী আছে সেখানে তালিকাভুক্ত থাকবে। কাজের সময়সীমা ৮ ঘণ্টা করা হয়েছে। অসুস্থ হলে মালিকপক্ষ তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করবে। এছাড়া কোনো গৃহকর্মীর বিরুদ্ধে খারাপ ব্যবহারের অভিযোগ প্রমাণ হলে তার কাজ বাতিল করা যাবে।  
পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে গৃহকর্মীদের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য আইন তৈরির দাবি করে জনস্বার্থে রিট দায়ের করে মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ফর পিস ফর বাংলাদেশ (এইচআরপিবি)। ২০১৪ সালে ১ জুলাই এ রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে রুল জারি করে আদালত।


মন্তব্য