kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৪ জানুয়ারি ২০১৭ । ১১ মাঘ ১৪২৩। ২৫ রবিউস সানি ১৪৩৮।


আলামতের ডিএনএ ও রাসায়নিক পরীক্ষার নির্দেশ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ মার্চ, ২০১৬ ১৫:৫৯



আলামতের ডিএনএ ও রাসায়নিক পরীক্ষার নির্দেশ

রাজধানীর রামপুরার বনশ্রীতে ভাই-বোন হত্যার ঘটনা তদন্তে বাড়ি থেকে জব্দ করা আলামত ও খাবারের ডিএনএ ও রাসায়নিক পরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রামপুরা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সোয়েম কুমার বড়ুয়ার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম কামরুল ইসলাম আজ বুধবার দুপুরে এ আদেশ দেন।

আদালত ওই বাসায় ব্যবহৃত চাদর, বালিশের কাভার, টিস্যু ও কম্বলের ডিএনএ প্রোফাইল তৈরি এবং ওই সময় বাসায় পাওয়া চাইনিজ খাবার ও একটি বোতলে সংরক্ষিত পানির রাসায়নিক পরীক্ষার জন্য পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগকে (সিআইডি) নির্দেশ দেন।

প্রসঙ্গত, সিদ্ধেশ্বরীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী নুশরাত জাহান অরণী (১৪) ও হলিক্রিসেন্ট স্কুলের নার্সারির ছাত্র আলভী আমান (৬) সোমবার মারা যায়। রাজধানীর একটি রেস্টুরেন্টের খাবার খেয়ে তারা মারা যায় বলে প্রথমে পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়। তবে ময়নাতদন্ত শেষে মঙ্গলবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের প্রভাষক ডা. প্রদীপ বিশ্বাস জানান, শিশু দুটিকে শ্বাসরোধে হত্যার আলামত মিলেছে। তাদের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

তিনি আরও জানান, অরণীর চোখে রক্ত জমাট ও গলায় আঘাত এবং আলভীর পা ও গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাদের শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। খাদ্যে বিষক্রিয়া হয়েছিল কী না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, ভিসেরা রিপোর্ট হাতে পেলে বিষয়টি জানা যাবে। ওই ঘটনার পর রাজধানীর একটি রেস্টুরেন্টের ম্যানেজার ও প্রধান বাবুর্চিসহ তিনজনকে আটক করে পুলিশ। ওই রেস্টুরেন্টের খাবার খেয়েই দুই শিশু মারা যায় বলে প্রথমে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়।

এদিকে, ওই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য জামালপুর থেকে বুধবার সকালে নিহতদের বাবা পোশাক ব্যবসায়ী মো. আমানুল্লাহ, মা মাহফুজা মালেক জেসমিন ও খালা আফরোজা মালেক নীলাকে ঢাকায় আনা হয়েছে। র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান দ্য রিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এরও আগে, মঙ্গলবার গৃহশিক্ষিকা শিউলি, নিহতের আত্মীয় ওবায়দুর ও শাহিন এবং দারোয়ান পিন্টু মণ্ডল ও ফেরদৌসকে র‌্যাব-৩ কার্যালয়ে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

 


মন্তব্য