kalerkantho


ডেইলি স্টার সম্পাদকের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ তদন্তের নির্দেশ

আদালত প্রতিবেদক   

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ২০:৫৩



ডেইলি স্টার সম্পাদকের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ তদন্তের নির্দেশ

সরকারের অনুমোদন সাপেক্ষে ইংরেজি দৈনিক পত্রিতা ডেইলি স্টারের সম্পাদক মাহফুজ আনামের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার মহানগর হাকিম স্নিগ্ধা রানী চক্রবর্তী এ আদেশ দেন। একই সঙ্গে ২৮ মার্চ প্রতিবেদন দাখিলের জন্য কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আদেশে বলা হয়েছে, এ ঘটনার গুরুত্ব ও স্পর্শকাতরতা বিবেচনা করে এই অভিযোগের সত্যতা যাচাই সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া আবশ্যক। এ জন্য ফৌজদারি কার্যবিধির ১৯৬ ধারা মোতাবেক সরকারের অনুমোদন সাপেক্ষে পরিদর্শক পদমর্যাদার নিচে নয় এমন কর্মকর্তা দিয়ে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হলো।

এর আগে ঢাকার ৯ নম্বর মহানগর দায়রা জজ অদালতের সহকারি পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) মো. মোস্তাফিজুর রহমান দুলাল বাদী হয়ে দণ্ডবিধির ১২৩(ক), ১২৪(ক), ৫০০ ও ৫০১ ধারায় নালিশী এ মামলা করেন।

আদালতে বাদী তার জবানবন্দিতে বলেন, আসামির এমন হলুদ সাংবাদিকতা এবং প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে তার পত্রিকায় ছাপানো মনগড়া, মিথ্যা, বানোয়াট ও বিকৃত তথ্য প্রকাশ করায় দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সুষ্টি হয়। ওই মিথ্যা সংবাদ প্রকাশের জন্য বর্তমান প্রধানমন্ত্রীকে পরবর্তীতে মিথ্যা মামলায় জড়ানো হয়।

মামলার আরজিতে বলা হয়, আওয়ামী লীগের রাজনীতিকে নেতৃত্বশূন্য করার হীন চেষ্টায় একটি এজেন্সির প্রেসক্রিপশন বাস্তবায়নে ২০০৭ সালের ১ নভেম্বর গণতন্ত্রবিরোধী শক্তিকে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত করার জন্য তার সম্পাদিত ডেইলি স্টার পত্রিকা মিথ্যা ও বিকৃত তথ্য প্রকাশ করে। গত ৩ ফেব্রুয়ারি বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল এটিএন- এ ‘গণতন্ত্র ও গণ মাধ্যমের মতিগতি’ নিউজ টকশো’তে আসামি স্পষ্টভাবে ভুল স্বীকার করে কৌশলে দায় এড়ানোর চেষ্টা করেছে। আসামি একজন প্রত্যক্ষ রাষ্ট্রদ্রোহী। ন্যায়বিচারের স্বার্থে রাষ্ট্রদ্রোহী আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি পূর্বক জেলহাজতে আটক রাখার আদেশ দেওয়া হোক।

উল্লেখ্য, একই ঘটনায় লক্ষ্মীপুর ও খুলনায় তার বিরুদ্ধে আরও চারটি মানহানির মামলা হয়েছে।



মন্তব্য