kalerkantho


সরকারি জায়গা দখল করে বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান

সৌমিত্র চক্রবর্তী, সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম)   

৭ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



সরকারি জায়গা দখল করে বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের সলিমপুর ইউনিয়নের কালুশাহনগরে সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের জায়গা দখল করে প্রকাশ্যে বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান নির্মাণের কাজ চলছে। স্থানীয় কয়েকজন প্রভাবশালী আইন-কানুনের তোয়াক্কা না করে এসব অবৈধ প্রতিষ্ঠান নির্মাণ করছেন। এতে দখলবাজরা আঙুল ফুলে কলাগাছ হলেও যানবাহন ও পথচারীদের চলাচল বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। বিষয়টি স্থানীয়রা সংশ্লিষ্ট দপ্তরে জানালেও রহস্যজনক কারণে কোনো প্রতিকার মিলছে না বলে অভিযোগ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সীতাকুণ্ড উপজেলাধীন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কালুশাহনগর এলাকায় চার লেন সংলগ্ন সওজের জায়গা দখলের মহোৎসব চলছে। কয়েকজন প্রভাবশালী ব্যক্তি কোটি কোটি টাকার জায়গা দখল করে বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান নির্মাণ করে ভাড়ায় ব্যবসা শুরু করেছেন।

সরেজমিনে ওই এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, এভাবে দখল করা বেশ কিছু জায়গা ভাড়া নিয়েছে এম এস এন্টারপ্রাইজ ও রিদোয়ান এন্টারপ্রাইজ নামক দুটি প্রতিষ্ঠান। আবার প্রতিষ্ঠানগুলো মহাসড়কের পাশে দখলকৃত জায়গার সামনে বেশ কিছু স্কেভেটরসহ নানান সরঞ্জাম রেখেছে।

ফলে পথচারী ও যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া আরো কিছু জায়গা দখলের জন্য মাটি ভরাট করছে কিছু শ্রমিক।

এ বিষয়ে রেদোয়ান এন্টারপ্রাইজের মালিক রেজাউল করিম বলেন, ‘জায়গাটি সড়ক ও জনপথ বিভাগের। স্থানীয় একজনের কাছ থেকে ভাড়া নিয়েছি আমি। এরপর স্থাপনা নির্মাণ করছি। সওজ যখন চাইবে তখন ছেড়ে দেব।’

কালুশাহনগর এলাকার বাসিন্দা মো. আবুল কাসেম বলেন, ‘এখানে যার সেখানে খুশি সওজের কোটি কোটি টাকার জায়গা দখল করছে। কিন্তু কর্তৃপক্ষের সাথে আঁতাত থাকায় তারা এসব উদ্ধারে কোনো ব্যবস্থা নেয় না। দখলকারী বা তাদের ভাড়াটিয়ারা স্কেভেটরসহ মালামাল রাখছে রাস্তার উপর। ফলে স্থানীয় পথচারী, স্কুল, কলেজ, মাদরাসার শিক্ষার্থীদের চলাচলে চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়তে হচ্ছে।’

সলিমপুর ইউনিয়নের কালুশাহনগরের ইউপি সদস্য খোরশেদ আলম বলেন, ‘যারা সরকারি জায়গা দখল করে স্থাপনা নির্মাণ ও স্কেভেটর রাখছে তাদের নিষেধ করা হলেও শুনছে না। বরং উল্টো আমার বিরুদ্ধে নানা অপপ্রচার করছে।’

চট্টগ্রাম সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জুলফিকার আহমেদ বলেন, ‘কালুশাহনগরে সড়কের জায়গা দখল করে বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার বিষয়টি আমার জানা ছিল না। আমি কর্মকর্তাদের ঘটনাস্থলে পাঠিয়ে সত্যতা পেলে ব্যবস্থা নেব।’



মন্তব্য