kalerkantho

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

তিন শিক্ষার্থীর জীবপ্রযুক্তি উদ্ভাবনী প্রতিযোগিতা জয়

মোবারক আজাদ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



তিন শিক্ষার্থীর জীবপ্রযুক্তি উদ্ভাবনী প্রতিযোগিতা জয়

জীবপ্রযুক্তি বিষয়ক উদ্ভাবনী প্রতিযোগিতায় দুটি জাতীয় এবং একটি আন্তর্জাতিক পুরস্কার অর্জন করেছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের তিন শিক্ষার্থী। সমপ্রতি ঢাকায় বঙ্গবন্ধু নভোথিয়েটারে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে এবং ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব বায়োটেকনোলজির তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত দেশের প্রথম ‘জাতীয় জীবপ্রযুক্তি মেলা ২০১৮’তে এই কৃতিত্ব অর্জন করেন তাঁরা। একটিতে চ্যাম্পিয়ন, আরেকটিতে রানার্স আপ এবং অন্যটিতে দেশসেরা হয়েছেন ওই তিনজন।

জানা যায়, এ প্রতিযোগিতার উদ্দেশ্য ছিল যাঁরা জীবপ্রযুক্তি নিয়ে পড়েন বা মানুষ বা উদ্ভিদের জীবন রহস্য নিয়ে কাজ করেন তাঁদের নিয়ে জীবপ্রযুক্তিতে পরিবর্তন কীভাবে আনা সম্ভব সেটা উদঘাটন করা বা বায়োলজিক্যাল টেকনোলজিকে কীভাবে ব্যবহার করা যায় সেটা নিয়ে কাজ করা। সারাদেশের প্রায় ২০ হাজার বিজ্ঞানী, উদ্যোক্তা, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, গবেষক ও সংগঠকদের অংশগ্রহণে আয়োজিত হয় জীবপ্রযুক্তি বিষয়ক এ অনুষ্ঠান। এতে জীবপ্রযুক্তি বিষয়ে ‘আইডিয়া’ দিয়ে ৩ জন দুটি জাতীয় পুরস্কার এবং বিশ্ববিখ্যাত ‘থ্রি মিনিট থিসিস’ প্রতিযোগিতায় গবেষণা উপস্থাপনে একজন একটি আন্তর্জাতিক পুরস্কারও পেয়েছেন। এ অর্জনে আনন্দের বন্যা ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্ববিদ্যালয় জুড়ে।

প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে জেনেটিক্স, বায়ইনফরমেটিক্স অ্যান্ড কম্পিউটেশনাল বায়োলজিভিত্তিক আইডিয়ার জাতীয় পোস্টার প্রদর্শনীতে চ্যাম্পিয়ন হয় জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের শিক্ষার্থী মুজাহিদুল ইসলাম এজাজ, আবদুর রহমান অপু ও  মিফতাহ মুশফিক তানিম। আর ওই প্রতিযোগিতায় ৩৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬০০ জন গবেষকের ২০২টি পোস্টার উপস্থাপিত হয়। এর মধ্যে ব্যাকটেরিয়ার অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধী ক্ষমতার বিরুদ্ধে মলিকুলার মডেল উপস্থাপন করে সাফল্য পান চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

অনুষ্ঠানে জাতীয় বায়োটেকনোলজিভিত্তিক বিজনেস আইডিয়া উপস্থাপনের ওপর একটি প্রতিযোগিতায় রানার্স আপ হয়েছে একই বিভাগের আরেকটি দল। এতে ২৫ বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০০টি দলের মধ্যে তিন ধাপ প্রতিযোগিতা শেষে রানার্স আপ হন একই বিভাগের শিক্ষার্থী তউসিফ রাজা, সুমাইয়া হাফিজ ও আবদুর রহমান অপু। তাঁদের উপস্থাপিত কচুরিপানাকে জৈবপ্রযুক্তির মাধ্যমে ব্যবহার করে বাণিজ্যিক ধারণা পুরস্কৃত হয়।

এ ছাড়া বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ার দ্য ইউনিভার্সিটি অফ কুইন্সল্যান্ডের সহযোগিতায় আয়োজিত হয় বিশ্বনন্দিত থ্রি মিনিট থিসিস প্রতিযোগিতা। তিন মিনিটে গবেষণা উপস্থাপনের জন্য জনপ্রিয় এই আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ পর্বে বিজয়ী হয়েছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের শিক্ষার্থী মৌসুমী ভৌমিক।

থ্রি মিনিট থিসিস প্রতিযোগিতায় দেশের ৩২টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন। এর মধ্যে বাংলাদেশের ডায়াবেটিস রোগীদের জিনগত পরিবর্তন ও অতিরিক্ত ওজনের সঙ্গে সম্পর্ক নির্ণয় নিয়ে তার গবেষণা উপস্থাপনের জন্য এই পুরস্কার অর্জন করেন।

প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী পুরস্কৃত শিক্ষার্থীরা জানান, প্রতিযোগিতাটিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের জীববিজ্ঞান অনুষদ থেকে মোট ১২টি দল অংশ নেয়। যার মধ্যে শুধু জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগ তিনটি পুরস্কার অর্জন করেছে। তাঁদের জন্য বিভাগ থেকে প্রশিক্ষণসহ সার্বিক সহযোগিতার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। এর আগে প্রাথমিক বাছাইয়ের মাধ্যমে সেরা ২০ জনকে নির্বাচন করা হয়। যার ফলেই তাঁরা সফলতার মুখ দেখেছেন। বিভাগের সভাপতি, সহযোগী অধ্যাপক ড. এস এম রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘খুবই মেধাবী শিক্ষার্থীরা আমাদের বিভাগে ভর্তি হয়। যা তাদের গবেষণা কর্মে প্রমাণিত হয়। শিক্ষার্থীরা পাস করে সারা বিশ্বে বিচরণ করছে। তাদের সাফল্যের জন্য আমাদের  জিইডি পরিবার গর্বিত।’

মন্তব্য