kalerkantho


মাদক-বাল্যবিয়েকে শিক্ষার্থীদের লাল কার্ড

৬৪ জেলায় লাল-সবুজের ১৮৫ দিন

তোফায়েল আহমদ, কক্সবাজার   

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



৬৪ জেলায় লাল-সবুজের ১৮৫ দিন

মাদকের ভয়াল থাবায় তরুণ সমাজ যখন আক্রান্ত তখনই মশাল হাতে এগিয়ে এসেছে একদল তরুণ। এই তরুণের দলটি সমসাময়িক সময়ে দেশজুড়ে মাদকবিরোধী অভিযান শুরুর অনেক আগে থেকেই মাদকবিরোধী বার্তা নিয়ে ঘুরছে দেশের পথ থেকে পথে। ‘তেঁতুলিয়া থেকে টেকনাফ’ দেশের প্রতিটি জেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মাদকবিরোধী প্রচারণা চালিয়েছে তরুণের এই দলটি।

ইতোমধ্যে ১৮৫ দিন ধরে সংগঠনটি পঞ্চগড় থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত সমানতালে আওয়াজ তুলেছে  আলোকিত বাংলাদেশের। তারাই লাখো শিক্ষার্থীকে শপথ বাক্য পাঠ করিয়ে ইতোমধ্যে অন্য রকম এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। শিক্ষার্থীদের টিফিনের টাকায় পরিচালিত ‘লাল-সবুজ উন্নয়ন সংঘ’ নামের স্বেচ্ছাসেবী এক সংগঠনের ব্যানারে মাদকের পাশাপাশি বাল্যবিবাহ, ইভটিজিং ও দুর্নীতিকেও ‘লাল কার্ড’ প্রদর্শন করেছে ৬৪ জেলাতেই।

সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা ও কেন্দ্রীয় সভাপতি কাওসার আলম সোহেলের প্রায় ৩ বছরের জমানো টাকা নিয়ে গত ৮ মার্চ পঞ্চগড় তেঁতুলিয়ায় শুরু হয় এ অভিযান। সেদিন মাগুরমারী চৌরাস্তা পমিজ উদ্দিন দাখিল মাদরাসা ও সাকোয়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাদক, ইভটিজিং, বাল্যবিবাহ, ধর্ষণ ও দুর্নীতি প্রতিরোধমূলক কার্যক্রমটি শুরু হয়। ঠিক ৬ মাস পর গত ৬ সেপ্টেম্বর ৬৪তম জেলা হিসেবে কক্সবাজার জেলা শহরের কলাতলী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তাদের কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হল।

প্রতিটি জেলায় প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের উপস্থিত রেখেই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানটি ৩টি ধাপে ভাগ করা ছিলো, প্রথমত স্কুল কলেজ শিক্ষার্থীরা মাদক, ইভটিজিং, বাল্যবিবাহ, ধর্ষণ ও দুর্নীতিকে লাল কার্ড প্রদর্শন করে সকল অন্যায়কে না বলেন এবং দেশপ্রেম, মানবতা ও সত্যবাদিতাকে সবুজ কার্ড প্রদর্শন করে হ্যাঁ বলেন।

তারপর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি সরকারি কর্মকর্তা শিক্ষার্থীদের শপথ পাঠ করান।

শপথটি এরকম-‘আমি শপথ করিতেছি যে নিয়মিত পড়াশোনা করে নিজকে যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলবো। কখনো মিথ্যা কথা বলবো না। সবসময় গুরুজনদের সম্মান করব। ধূমপান অথবা মাদক সেবন করবো না।

ছেলেরা ২১ বছর ও মেয়েরা ১৮ বছর বয়সের পূর্বে বিয়ে করব না। আজ জঙ্গিবাদ, মাদক, ইভটিজিং বাল্যবিবাহ, যৌতুক, দুর্নীতি ও নকলকে চিরদিনের জন্য বিদায় জানালাম। আমি আমার শপথ কখনো ভঙ্গ করব না।’

শপথ শেষে শিক্ষার্থীরা নানান সমস্যা নিয়ে সরাসরি কথা বলেন প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সাথে। শিক্ষার্থীদের সমস্যা সমাধানে বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানের অতিথিরা।

উল্লেখ্য, লাল সবুজ উন্নয়ন সংঘ নামের সংগঠনটি ২০১১ সালের ২৪ মে কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার পশ্চিম নোয়াদ্দা গ্রামে কাওসার আলম সোহেল তাঁর জমানো টাকা ও ফারজানা আক্তার সুমীর সেনা কল্যাণ থেকে বৃত্তি ও একজোড়া কানের দুল বিক্রির টাকা দিয়ে প্রতিষ্ঠা করেন।

সংগঠনটি প্রতিষ্ঠার পর থেকেই সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষা উপকরণ বিতরণ, বৃক্ষরোপণ ও মাদক, ইভটিজিং ও বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে শিক্ষার্থীদের সচেতন করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায়

একটানা সারা দেশে কর্মসূচি পালন করছেন সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা।

৬৪তম জেলা হিসেবে কক্সবাজার কলাতলী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা সকল অন্যায়কে না বলে লাল কার্ড প্রদর্শন করেন এবং এর প্রতিরোধে শপথ নেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে শপথ পাঠ করান কক্সবাজার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ইকবাল হোসেন।

লাল সবুজ উন্নয়ন সংঘের প্রতিষ্ঠাতা ও কেন্দ্রীয় সভাপতি কাওসার আলম সোহেলের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ মফিজুর রহমান, সহকারী প্রধান শিক্ষক মাসুক আরা নাসরিন প্রমুখ।

গত শনিবার সফরের ৬ মাস পূর্ণ হয়।

তেঁতুলিয়া থেকে শুরু হওয়া সফরটি শনিবার টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ও মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে কার্যক্রমের মাধ্যমেই ইতি টানা হয়েছে বলে জানান সংগঠনের সভাপতি।



মন্তব্য