kalerkantho


সন্দ্বীপের মুছাপুর

সেতুর অভাবে দুর্ভোগের শেষ নেই এলাকাবাসীর

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১১ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



সেতুর অভাবে দুর্ভোগের শেষ নেই এলাকাবাসীর

নারী-পুরুষ মিলে ১৪০০ ভোটারসহ প্রায় ছয় হাজার লোকের বসবাস সন্দ্বীপ উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডে।

ধুপের খালের উপর নির্মিত অন্তত ৬০ ফুট লম্বা সেতুটি ভেঙে গেছে ১৫ বছর আগে। সরকারি গুরুদাস প্রাইমারি স্কুলের পাশে অবস্থিত ওই সাঁকো দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে পারাপার করছে স্কুলের শিক্ষার্থী ও স্থানীয় লোকজন। সাঁকোটির পশ্চিম পাড়ের মানুষগুলোকে প্রতিনিয়ত বাজার, সন্দ্বীপ টাউন, স্কুল ও কলেজসহ যাবতীয় কাজের জন্য যাতায়াত করতে হয় সাঁকোটি দিয়ে।

এলাকাবাসী জানান, বর্ষা মৌসুমে পানি ও জোয়ার বেশি থাকায় সাঁকোটি প্রায় ডুবে থাকে। এর ফলে এই সাঁকো দিয়ে স্থানীয় লোকজন এখন

মোটেও যাতায়াত করতে পারেন না।

বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল খায়ের নাদিম ও মেম্বার ফরিদ উদ্দিনের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করা হলেও তাঁরা সাড়া দেননি।

তবে নারী মেম্বার কুলসুমা বেগম বলেন, ‘২০১৭ সালের ডিসেম্বরে স্থানীয় সংসদ সদস্য এলাকায় উঠান বৈঠক করতে এলে তিনি সাঁকোটির স্থানে পাকা সেতু করে দেবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন।’

এ ব্যাপারে স্থানীয় সংসদ সদস্য মাহফুজুর রহমান মিতার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি চেষ্টা করেছিলাম।

পর্যাপ্ত বরাদ্দ না থাকায় তা আর হয়নি।’ তবে আগামী নির্বাচনে পুনরায় এমপি নির্বাচিত হলে প্রথমে এই কাজ করবেন বলে তিনি জানান।



মন্তব্য