kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

দুই নারীর সাঁতরিয়ে বাংলা চ্যানেল পাড়ি

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি   

২১ মার্চ, ২০১৯ ২১:৩৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুই নারীর সাঁতরিয়ে বাংলা চ্যানেল পাড়ি

দুই অদম্য নারী। একজন মিতু আকতার অপরজন সোহাগী আকতার। মিতু আকতারের বাড়ি বগুড়া এবং সোহাগী আকতারের বাড়ি গাইবান্ধা জেলায়। দুই জনে বঙ্গোপসাগরে বিখ্যাত বাংলা চ্যানেল টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ থেকে সেন্ট মার্টিনস পর্যন্ত পানিপথ সাঁতরিয়ে পাড়ি দিয়েছেন। এপথ পাড়ি দিতে মিতুর সময় লেগেছে ৪ ঘণ্টা ৫ মিনিট এবং সোহাগীর সময় লেগেছে ৫ ঘণ্টা ৩ মিনিট।

বৃস্পতিবার ষড়জ এ্যাডভেঞ্চার ও এক্সট্রিম বাংলার আয়োজনে ১৪তম ফরচুন বাংলা চ্যানেল সাঁতার প্রতিযোগিতায় মিতু আকতার এবার দ্বিতীয় বার অংশ নিয়েছেন। এর আগে তিনি ২০১৮ সালে প্রতিযোগিতার ১৩তম আসরে অংশ নিয়েছিলেন। তিনি বাংলা চ্যানেল পাড়ি দেয়া প্রথম বাংলাদেশী নারী।

মিতু আকতার কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘এর আগে গতবছর প্রথম বাংলাদেশী নারী হিসেবে বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়েছিলাম। কালের কণ্ঠ শুভ সংঘ আমাকে সংবর্ধিত করেছিল সেবার। এটি আমার দ্বিতীয়তম অংশ গ্রহণ। তবে গতবারের চেয়ে কম সময়ে বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিতে পারায় খুলি লাগছে। সামনে আরও অনেকবার বাংলা চ্যানেল পাড়ি দেয়ার ইচ্ছা আছে।’

অন্যদিকে বাংলা চ্যানেল পাড়ি দেয়া সর্ব কনিষ্ঠা নারী সোহাগী আকতার কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘ জীবনে প্রথমবার বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়েছি। বয়স এখনো চৌদ্দ, ইচ্ছা আছে আরও অনেকবার বাংলা চ্যানেল পাড়ি দেয়ার।’

এ ব্যাপারে ষড়জ এ্যাডভেঞ্চার’র প্রধান নির্বাহী লিপটন সরকার বলেন, ‘ আজকে (বৃহস্পতিবার) ৩৪ জন সাঁতারো বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে সেন্ট মার্টিনসের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন। সেখানে মিতু ও সোহাগী নামের দুই নারীও ছিল। দুইজনই কাছাকাছি কম বয়সী মেয়ে। দুজনের মধ্যেই চ্যালেঞ্জ গ্রহণের প্রচন্ড আগ্রহ রয়েছে এবং তারা সফলভাবে বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিতে পেরেছেন।’

মন্তব্য