kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

কক্সবাজার সৈকতে বিচ বাইকে টুরিস্ট পুলিশের টহল

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার   

১২ মার্চ, ২০১৯ ২০:৩১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কক্সবাজার সৈকতে বিচ বাইকে টুরিস্ট পুলিশের টহল

বিচ বাইক (বালুচরের যান) নিয়েই বিশ্বের দীর্ঘতম কক্সবাজারের সৈকতে ট্যুরিস্ট পুলিশ পর্যটকদের নিরাপত্তা বিধানে নিয়োজিত রয়েছে। সৈকতের কয়েক কিলোমিটার এলাকা এসব বিচ বাইক দিয়ে ট্যুরিস্ট পুলিশ পাহারা দিচ্ছে সার্বক্ষণিক। পর্যটনের বর্তমান মৌসুমে কক্সবাজার ভ্রমণে আসছে প্রচুর সংখ্যক পর্যটক। এ কারনে ট্যুরিস্ট পুলিশও তাদেও নিরাপত্তা জোরদার করেছে।

কক্সবাজার সৈকতে পর্যটকের নিরাপত্তায় টহল কাজে আরো ৩টি বিচ বাইক সংযোজিত হয়েছে। এ নিয়ে টহলে ব্যবহৃত বীচ বাইকের সংখ্যা দাড়ালো ৯ টিতে। আরো ২ টি বীচ বাইক সংযোজনের অপেক্ষায় রয়েছে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার জনাব ফখরুল ইসলাম।

জানা যায়, বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত নগরী কক্সবাজারে প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক পর্যটক সাগর দর্শন ও পর্যটন স্পট গুলোতে ঘুরতে আসেন। আগত পর্যটকদের সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা বিধানসহ যে কোনো ধরণের অপ্রত্যাশিত ঘটনা এড়াতে নিয়োজিত রয়েছে ট্যুরিস্ট পুলিশ। ইতোমধ্যে ট্যুরিস্ট পুলিশ দেশী-বিদেশী পর্যটকসহ জনগণের নিকট থেকে যথেষ্ট সুনাম অর্জনে সক্ষম হয়েছে।

পর্যটকদের নিরাপত্তা বিধানে বিভিন্ন যানবাহন ছাড়া সৈকতে সার্বক্ষণিক টহলের জন্য নিয়োজিত ছিল ৬ টি বীচ বাইক। ইতিপূর্বে ২০০৯ সালে ইউএনডিপি  কর্তৃক দেয়া ৫ টি বীচ বাইক ব্যবহারের পর দীর্ঘ ৬-৭ বছর অকেজো হয়ে পড়েছিল। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতিক্রমে উক্ত বীচ বাইক গুলোর আংশিক পুনঃ মেরামত করা হয়েছে। মেরামতের পর ৩ টি বীচ বাইক বুঝিয়ে নেওয়া হয়েছে। আরো ২ টি বীচ বাইক মেরামতের প্রায় শেষ পর্যায়ে। এতে করে পর্যটকদের নিরাপত্তায় সার্বক্ষণিক নিয়োজিত থাকবে মোট ১১ টি বীচ বাইক।

ট্যুরিস্ট পুলিশের পুলিশ সুপার জনাব মোঃ জিল্লুর রহমান জানান যে, ট্যুরিস্ট পুলিশের সার্বক্ষণিক টহল বীচে আগত সকল পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতসহ পর্যটকদের আনন্দ ভ্রমণে স্বস্তি এনে দেবে। ট্যুরিস্ট পুলিশ সর্বদা পর্যটকের সেবায় নিয়োজিত রয়েছে বলেও জানান তিনি। 

মন্তব্য