kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

ইয়াবাসহ ছাত্রদল নেতা ও ১১ রোহিঙ্গা আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার ও টেকনাফ প্রতিনিধি    

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:৩৭



ইয়াবাসহ ছাত্রদল নেতা ও ১১ রোহিঙ্গা আটক

কক্সবাজারের টেকনাফে চিহ্নিত ১০২ ইয়াবা কারবারি আত্মসমর্পণ করার পরও ইয়াবা পাচার থেমে নেই। সীমান্ত শহর টেকনাফ ছাড়াও জেলার অন্যান্য উপজেলাতে ইয়াবা পাচারের ঘটনা উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে। প্রতিনিয়ত জেলার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে ধরা পড়ছে ইয়াবার চালান। কয়েকটি ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনায় আটক হচ্ছে পাচারকারীরাও।

বৃহস্পতিবার কক্সবাজারের রামু তুলা বাগান এলাকায় রামু হাইওয়ে পুলিশ একটি মাইক্রোবাস (নোয়া) তল্লাশি করে ১০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় ইয়াবা পাচারকারী জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাবিব উল্লাহকে আটক করা। তিনি শহরের তারাবনিয়ারছড়া এলাকার মৃত. আব্দুর রশিদের ছেলে। এ সময় তার ব্যক্তিগত নোয়াহ (মাইক্রো) গাড়ি (চট্টমেট্রো গ-১১-৪৪৩৬) জব্দ করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে রামু ক্রসিং হাইওয়ে পুলিশের ওসি মুজাহিদুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, সকালে কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কে কক্সবাজার মূখী একটি মাইক্রোবাস (নোয়াহ) তল্লাশি করে ডেজবোর্ডের ভিতর থেকে ৫টি প্যাকেটে ১০ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট পাওয়া যায়। আটক ব্যক্তি হাবিব উল্লাহকে রামু থানায় সোপর্দ করা হয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামরা দায়ের করা হয়েছে।

অপরদিকে সেন্ট মার্টিন্সে গভীর সমুদ্রে এক লাখ পিস ইয়াবাসহ ১১ মিয়ানমার নাগরিককে আটক করেছে কোস্টগার্ড। বৃহস্পতিবার ভোরে দ্বীপের দক্ষিণ-পূর্ব সমুদ্রে ফিশিং ট্রলারসহ তাদের আটক করা হয়।

টেকনাফ কোস্টগার্ড স্টেশনের ইনচার্জ লে. কমান্ডার ফয়জুল ইসলাম মন্ডল কালের কণ্ঠকে  জানান, মিয়ানমার থেকে সমুদ্রপথে মাছ ধরার ট্রলারে করে ইয়াবা একটি বড় চালান বাংলাদেশে ঢুকছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তিনিসহ কোস্টগার্ডের একটি দল সেন্ট মার্টিন্সের গভীর সমুদ্রে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় একটি মাছ ধরার ট্রলারে তল্লাশি চালিয়ে এক লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেন তারা। ট্রলারটি থেকে মিয়ানমারের ১১ নাগরিককে আটক করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, ইয়াবার চালানটি কার কাছে নেওয়া হচ্ছিল সেটি জানতে আটক ১১ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তাদের টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তরের প্রস্তুতি চলছে।

এদিকে টেকনাফে শতাধিক ইয়াবা কারাবরির আত্মসমর্পণের পরও কোনোভাবে থামছেন ইয়াবা কারবারিরা। প্রতিনিয়ত আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সসদস্যরা জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযানেল চালিয়ে বেশ কয়েকটি ইয়াবার চালান আটক করতে সক্ষম হয়েছে। 



মন্তব্য