kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

বিদেশি সংস্থার স্টিকার লাগিয়ে ইয়াবা পাচার

সাগর পথে ফের মানবপাচার

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার ও টেকনাফ প্রতিনিধি   

৭ নভেম্বর, ২০১৮ ০২:৩০



সাগর পথে ফের মানবপাচার

কক্সবাজারে বিদেশি একটি বেসরকারি সাহায্য সংস্থার স্টিকার লাগানো গাড়িতে করে পাচারের সময় গতকাল মঙ্গলবার এক লাখ ১৫ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট আটক করেছে র‍্যাব। এ ছাড়া বিমানবন্দরে এক যাত্রীর কাছ থেকে এক হাজার ইয়াবা জব্দ করা হয়েছে।

এদিকে নতুন করে সাগর পথে আবারও শুরু হয়েছে মানবপাচার। কক্সবাজারের টেকনাফ ও উখিয়ার শিবিরগুলো থেকে রোহিঙ্গাদের সাগর পথে মালয়েশিয়াসহ কয়েকটি দেশে পাঠানো হচ্ছে বলে জানা গেছে। গতকাল পাচারকারীদের প্রতারণার শিকার ১৪ রোহিঙ্গা নারী ও পুরুষকে উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

বিদেশি সংস্থার স্টিকার লাগানো গাড়ি থেকে ইয়াবার চালান আটক : গতকাল টেকনাফ সীমান্তে ড্যান চার্জ এইড-অ্যালায়েন্স (ডিসিএ-অ্যালায়েন্স) নামের একটি বিদেশি সংস্থার স্টিকার লাগানো মাইক্রোবাস তল্লাশি করে এক লাখ ১৫ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করে র‍্যাব-৭ একটি দল। এ সময় মাইক্রোবাসটির চালক মীর কাশেমকে আটক করা হয়। তিনি মহেশখালী উপজেলার শামলাপুর ইউনিয়নের মিঠাইছড়ি গ্রামের আবু ছৈয়দের ছেলে।

র‍্যাব-৭-এর কক্সবাজার কম্পানির কমান্ডার মেজর মেহেদী হাসান জানিয়েছেন, গাড়িচালক কাশেম স্বীকার করেছেন, তিনি গাড়িটি ভাড়ায় চালান। ড্যান চার্জ এইডের স্টিকার তিনি নিজে লাগিয়েছেন।

র‍্যাব-৭-এর টেকনাফ ক্যাম্পের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মির্জা শাহেদ মাহতাব বলেন, ইয়াবা পাচার হবে—এমন খবর পেয়ে গতকাল ভোরে টেকনাফ কলেজ গেট এলাকায় অস্থায়ী তল্লাশি চৌকি স্থাপন করা হয়। এ সময় ডিসিএ-অ্যালায়েন্স নামের একটি বিদেশি সাহায্য সংস্থার স্টিকার লাগানো একটি মাইক্রোবাস তল্লাশি করে ইয়াবার চালানটি আটক করা হয়।

জানা গেছে, কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফে রোহিঙ্গা শিবিরে কাজ করছে এমন দেশি-বিদেশি প্রায় ১২০টি বেসরকারি সংস্থার কর্মকর্তা ও কর্মীদের যাতায়াতে ব্যবহূত হচ্ছে শতাধিক গাড়ি। সকালে সংস্থাগুলোর কর্মকর্তাদের নিয়ে এসব গাড়ি শিবিরে আসে এবং বিকেলে ফিরে যায় কক্সবাজার শহরে। সাধারণত এসব গাড়ি তল্লাশি করে না আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। দীর্ঘদিন ধরে এ সুযোগটাই কাজে লাগাচ্ছে ইয়াবা কারবারিরা।

এর আগেও বেসরকারি কয়েকটি সংস্থার স্টিকার লাগানো গাড়ি থেকে ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছিল।

র‍্যাব কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট মির্জা শাহেদ মাহতাব বলেন, গতকাল জব্দকৃত মাইক্রোবাস, ইয়াবা ও আটক চালককে টেকনাফ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। 

ইয়াবা নিয়ে বিমানযাত্রী আটক : কক্সবাজার থেকে বাংলাদেশ বিমানের ঢাকার যাত্রী ছিলেন বাদশাহ খালেদ (২১) নামের এক যুবক। গতকাল সকালে এই যুবক বিমানবন্দরে ঢোকার পর তিনি ধরা পড়েন। তাঁর পাকস্থলী থেকে উদ্ধার করা হয়েছে এক হাজার ইয়াবাসহ একটি পুঁটলি। টেকনাফের হ্নীলা ওয়াব্রাং গ্রামের বাসিন্দা বাদশাহ খালেদকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরে সোপর্দ করা হয়। পাচারকারী জানিয়েছেন, তাঁর গ্রামের সাইফুল নামের একজন কারবারি ১৫ হাজার টাকার বিনিময়ে এক হাজার ইয়াবা বহনের দায়িত্ব তাঁকে দেয়।

সাগরপথে মালয়েশিয়াগামী নারীসহ ১৪ রোহিঙ্গা উদ্ধার : কিছুদিন ধরে টেকনাফ শাহপরীর দ্বীপ হয়ে সাগর পথে মানবপাচার চলছে বলে জানা গেছে। গতকাল ভোরে বিজিবি সদস্যরা দ্বীপের সাগরতীর থেকে ১৪ রোহিঙ্গা নারী-পুরুষকে উদ্ধার করেছে। উদ্ধার হওয়া রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ সবাই উখিয়া-টেকনাফের রোহিঙ্গা শিবিরের বাসিন্দা। তবে পাচারকারীরা তাদের থাইল্যান্ডে পাঠানোর কথা বলে প্রতারণা করেছে বলে বিজিবি জানিয়েছে। বিজিবি কর্মকর্তারা জানান, পাচারকারীরা এসব রোহিঙ্গার কাছ থেকে জনপ্রতি ১০-১৫ হাজার টাকা করে নিয়েছে। তাদের গত ২ নভেম্বর টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়নের কচুবনিয়া এলাকার ঘাট থেকে নৌকায় তুলে গভীর সমুদ্রের দিকে রওনা দেয়। তিন দিন তিন রাত সাগরে ভেসে গতকাল ভোরের আগে শাহপরীর দ্বীপের ঘোলার চর এলাকায় নৌকা ভেড়ায়। পাচারকারীরা রোহিঙ্গাদের বলেছে যে তাদের থাইল্যান্ড উপকূলে এনে নামানো হচ্ছে। নামিয়ে দেওয়ার পর জেলেরা তাদের দেখে বিজিবিকে খবর দেয়। 

টেকনাফ-২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের উপ-অধিনায়ক মেজর শরীফুল ইসলাম জমাদ্দার এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগেও এখান থেকে আরো দুইবার মালয়েশিয়াগামী রোহিঙ্গাদের উদ্ধার করা হয়।



মন্তব্য