kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

চট্টগ্রামে আন্তর্জাতিক শাহাদাত-এ-কারবালা মাহফিল শুরু কাল

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০১:০১



চট্টগ্রামে আন্তর্জাতিক শাহাদাত-এ-কারবালা মাহফিল শুরু কাল

চট্টগ্রাম নগরের জমিয়তুল ফালাহ মসজিদে আগামীকাল মঙ্গলবার শুরু হচ্ছে ১০ দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক শাহাদাত-এ-কারবালা মাহফিল। ৩৩তম এই আয়োজনে অংশ নিতে আসছেন মিসরের আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৫ সদস্যের টিমসহ লেবানন, মালয়েশিয়া, ভারত ও শ্রীলঙ্কার ইসলামী স্কলাররা।

মাহফিলের প্রস্তুতি উপলক্ষে গতকাল রবিবার নগরের একটি রেস্টুরেন্টে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান মাহফিল পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ও প্রধান পৃষ্ঠপোষক সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, বাংলাদেশে ইসলাম প্রচার হয়েছে অলি-বুজর্গদের মাধ্যমে। চট্টগ্রাম হচ্ছে পুণ্যভূমি, বারো আউলিয়ার জায়গা। জশনে জুলুসের প্রবর্তন হয়েছিল চট্টগ্রামে। ৩৩ বছর ধরে এখানে আহলে বাইতে রাসুল (সা.) স্মরণে শাহাদাত-এ-কারবালা মাহফিল হচ্ছে। এবারই প্রথম আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৫ জন স্কলার মাহফিলে আসছেন। বিভিন্ন দেশ থেকে ইসলামী স্কলাররাও এতে শরিক হচ্ছেন। আগতদের মধ্যে রয়েছেন আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. ইব্রাহিম সালেহ হুদ হুদ, ইসলামিক স্টাডিজ ও উসুলুদ দিন ফ্যাকাল্টির ডিন প্রফেসর ড. জামাল ফারুক আদ্দাক্কাক, প্রফেসর ড. আব্দুল ফাত্তাহ আব্দুল গনি, বড়পীর হজরত আবদুল কাদের জিলানির (রা.) আওলাদ আশ শাইখ আস সৈয়দ আল্লামা আফিফুদ্দিন আল জিলানি আল বাগদাদি, ভারতের কাসওয়াসা দরবারের সাজ্জাদানসীন শাহ সুফি সৈয়দ মাহমুদ আশরাফ আল জিলানি প্রমুখ।

ইসলামে মানুষকে ভালোবাসার কথা উল্লেখ করা হয়েছে উল্লেখ করে সুফি মিজানুর রহমান বলেন, ‘নিরীহ মানুষ হত্যা আর রগ কাটা ইসলামে নেই। জঙ্গিবাদ ইসলামে নেই। বিপথগামী মানুষকে হেদায়েতের জন্য ইসলামী স্কলারদের আনা হচ্ছে। আমাদের লক্ষ্য সংঘাতমুক্ত সমাজ গড়া।’

সংবাদ সম্মেলনে সুফি মিজানের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি বিভাগের শিক্ষক ড. জাফর উল্লাহ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, শাহাদাত-এ-কারবালা মাহফিল বিশ্ববাসীর কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য  মোবাইল অ্যাপস খোলা হয়েছে, যা গুগলের প্লে স্টোরে পাওয়া যাচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন আনজুমান-এ-রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টের সিনিয়র সহসভাপতি মোহাম্মদ মহসিন, গাউসিয়া কমিটির চেয়ারম্যান পেয়ার মোহাম্মদ, জমিয়তুল ফালাহ মসজিদের খতিব আল্লামা সৈয়দ আবু তালেব মুহাম্মদ আলাউদ্দিন, সিরাজুল মোস্তফা, আনোয়ারুল হক, অধ্যাপক কামাল উদ্দিন প্রমুখ।



মন্তব্য