kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

লক্ষ্মীপুরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে পিটিয়ে হাত ভেঙে ফেলে রাখা হয় ড্রেনে

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি    

১৯ আগস্ট, ২০১৮ ০২:৫২



লক্ষ্মীপুরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে পিটিয়ে হাত ভেঙে ফেলে রাখা হয় ড্রেনে

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক হাশেম আহমেদ রুপমকে বেদম পিটিয়ে হাত ভেঙে দেওয়া হয়েছে। পরে তাঁকে একটি নির্মাণাধীন ড্রেনে ফেলা রাখা হয়। গতকাল শনিবার দুপুরে শহরের আলিয়া মাদরাসা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সদর হাসপাতালে চিকিত্সাধীন রুপম বাঞ্ছানগর এলাকার ফয়েজ আহমেদের ছেলে। 

অভিযোগ উঠেছে, লক্ষ্মীপুর পৌরসভার মেয়র আওয়ামী লীগ নেতা আবু তাহেরের ছোট ছেলে আবু শাহাদাত শিবলু তার অনুসারীদের নিয়ে প্রকাশ্যে এ হামলা চালিয়েছেন। ওই এলাকায় ড্রেন নির্মাণকালে রুপমদের বাড়ির পানি ও গ্যাসের ক্ষতিগ্রস্ত লাইন মেরামত করে দিতে বললে এ হামলা চালানো হয়। শিবলু পৌরসভার ওই ড্রেন নির্মাণকাজের তত্ত্বাবধান করে আসছেন।

আহত হাশেম আহমেদ রুপম জানান, তাঁর বাড়ির ক্ষতিগ্রস্ত গ্যাস ও পানির সংযোগ মেরামত করে দিতে বললে শিবলু ক্ষিপ্ত হয়। এ সময় সে পরানসহ পাঁচ-ছয়জন সহযোগী নিয়ে তাঁর ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। কিছু বুঝে ওঠার আগেই তাঁর ডান হাত ভেঙে শরীর রক্তাক্ত জখম করে ড্রেনে ফেলে দেয়।

অভিযুক্ত আবু শাহাদাত শিবলু বলেন, ‘রুপম আমাকে ও বাবাকে গালমন্দ করেছে। এতে তার সঙ্গে আমাদের হাতাহাতি হয়। আমি সেখানে ড্রেনের কাজের মালপত্র সরবরাহ করছি।’

সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) আনোয়ার হোসেন বলেন, আহত ব্যক্তির ডান হাত ভেঙে গেছে। তাঁর বাম চোখের ওপর ও শরীরের বিভিন্ন অংশ রক্তাক্ত জখম হয়। হাসপাতালে তাঁর চিকিত্সা চলছে।
জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি বেলায়েত হোসেন বেলাল বলেন, ‘এ হামলার ঘটনা অত্যন্ত ন্যক্কারজনক। বিষয়টি কেন্দ্র ও জেলার সিনিয়র নেতাদের জানিয়েছি। এ ঘটনায় জড়িতদের বিচার দাবি করছি।’

জানতে চাইলে লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোসলেহ উদ্দিন বলেন, ঘটনাটি কেউ পুলিশকে জানায়নি। এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



মন্তব্য