kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

চবির সাংবাদিকতা বিভাগের আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু মঙ্গলবার

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৬ জুলাই, ২০১৮ ২২:৩০



চবির সাংবাদিকতা বিভাগের আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু মঙ্গলবার

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের উদ্যোগে প্রথমবারের মতো 'মিডিয়া কমিউনিকেশন অ্যান্ড জার্নালিজমঃ প্রসপেক্টস অ্যান্ড চ্যালেঞ্জেস ইন বাংলাদেশ অ্যান্ড বিয়ন্ড' শিরোনামে তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলন আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে শুরু হতে যাচ্ছে। সম্মেলনে উদ্বোধনী অধিবেশনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ও  বিশেষ অতিথি হিসেবে চট্টগ্রামের দৈনিক আজাদীর সম্পাদক এম এ মালেক। 

আজ সোমবার দুপুর ২টায় যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সভাপতির কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান সম্মেলনের সম্পাদক ও বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক শাহাব উদ্দীন নিপু।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ১৭ থেকে ১৯ জুলাই তিন দিনব্যাপী পুরো সম্মেলনটি চবির একে খান আইন অনুষদ মিলনায়তন ও গ্যালারীতে অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনে বাংলাদেশ ছাড়াও ৯টি দেশের প্রায় ২৯ জন প্রবন্ধকার উপস্থিত থাকবেন। সম্মেলনকে ৩টি প্ল্যানারি এবং ১৫টি প্যারালাল অধিবেশনে বিন্যস্ত করা হয়েছে। এতে ১৩টি সুনির্দিষ্ট বিষয়কে ঘিরে ১৩টি প্যারালাল অধিবেশন ছাড়াও শিক্ষার্থীদের দুইটি পৃথক অধিবেশনে গবেষকরা প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন।

সম্মেলনে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ছাড়াও দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ঢাকা, রাজশাহী, জাহাঙ্গীরনগর, জগন্নাথ, খুলনা, কুমিল্লা, ড্যাফোডিল, ইউল্যাব, আইইউবি, বরেন্দ্র ও পোর্টসিটির শিক্ষকরা প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন।

অন্যদিকে দেশের বাহিরে ভারত থেকে ১৭ জন, পাকিস্তান থেকে ৪,  নেপাল থেকে ২,  ভুটান, চীন, মালয়েশিয়া, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র এবং রাশিয়া থেকে একজন করে প্রবন্ধকার সম্মেলনের জন্য মনোনীত হয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরো জানানো হয়, প্রথম দিনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন চবি উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দীন চৌধুরী। অন্যদিকে সমাপনী অধিবেশনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান ড. আব্দুল মান্নান এবং এতে সভাপতিত্ব করবেন চবি উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরিণ আখতার। 

উক্ত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন বিভাগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, প্রফেসর মো. শহীদুল্লাহ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মোহাম্মদ আলী আজগর চৌধুরী প্রমুখ। 



মন্তব্য