kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

উন্নয়ন কার্যক্রমে ধীরগতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর অসন্তোষ

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে বদলির পরও সপদে বহাল চসিকের প্রধান প্রকৌশলী

নূপুর দেব, চট্টগ্রাম   

২২ মে, ২০১৮ ০১:২৯



জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে বদলির পরও সপদে বহাল চসিকের প্রধান প্রকৌশলী

গত বছরের ১২ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রাম সফরকালে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) অধীনে নগরের বিমানবন্দর সড়কে তিনটি সেতুর উন্নয়নকাজের ধীরগতি নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন। এ পরিস্থিতিতে ওই প্রকল্পের পরিচালক এবং চসিকের প্রধান প্রকৌশলীকে বদলি করা হয়।

এর মধ্যে প্রকল্প পরিচালকের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া এলজিইডির তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শাহজাহান মোল্লা তাঁর কর্মস্থলে যোগদান করেছেন। একই সঙ্গে চসিক প্রকৌশল বিভাগের প্রধান এবং প্রকল্প বাস্তবায়ন ইউনিটের অন্যতম সদস্য প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমদকে অন্যত্র বদলি করা হলেও তিনি এখনো সপদে বহাল রয়েছেন।

গত ১২ মার্চ জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রেষণ-১ অধিশাখা উপসচিব এম কাজী এমদাদুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক আদেশে দেখা যায়, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী বিএ-৪৩৫৬ লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমদকে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসে (বিইউপি) অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর (ইঞ্জিনিয়ার সেকশন) পদে বদলি করা হয়। ওই প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, জনস্বার্থে জারীকৃত এ আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হবে।

এদিকে গত ২৫ মার্চ স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ (সিটি করপোরেশন-২ শাখা) থেকে চসিকের প্রধান প্রকৌশলী পদে প্রেষণে কর্মরত লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমদের বদলির বিষয়টি জানিয়ে চসিককে একটি চিঠি দেওয়া হয়।

তবে গতকাল সোমবার এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত চসিকের প্রধান প্রকৌশলী পদে প্রেষণে কর্মরত রয়েছেন লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমদ। 

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (যুগ্ম সচিব) মো.  সামসুদ্দোহা গতকাল বিকেলে কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘প্রধান প্রকৌশলী বদলি হয়েছেন। তাঁর রিলিজ প্রক্রিয়াধীন আছে। গত সপ্তাহে ফাইল মেয়রের কাছে পাঠানো হয়েছে।’

নিজের বদলির বিষয়ে এলজিইডি তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (কারিগরি সহায়তা) শাহজাহান মোল্লা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রাম সফরকালে ওই কাজে অসন্তোষ প্রকাশ করেন। আমি প্রকল্প পরিচালক ছিলাম। আমি ও করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলীকে বদলি করা হয়। আমাদের (এলজিইডি) মন্ত্রণালয়ের বদলির আদেশ পেয়ে আমি এর তিন দিন পর ১৫ মার্চ এখানে (ঢাকা এলজিইডি সদর দপ্তর) যোগদান করি। আমার স্থলে আর একজনকে প্রকল্প পরিচালকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।’

বদলি হলেও নতুন কর্মস্থলে যোগদান না করার বিষয়ে জানতে প্রেষণে কর্মরত চসিকের প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমদের সঙ্গে গতকাল একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।

এর আগে গত বছরের নভেম্বরের শেষ দিকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব নুমেরী জামান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, চট্টগ্রামের বিমানবন্দর সড়কে তিনটি সেতুর উন্নয়ন কার্যক্রমের ধীরগতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী অসন্তোষ প্রকাশ করেন। সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে দেওয়া ওই চিঠিতে আরো বলা হয়, ‘এ পরিস্থিতিতে উক্ত প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক শাহজাহান মোল্লা, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী, এলজিইডিকে প্রকল্প পরিচালকের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। প্রকল্প বাস্তবায়নে ধীরগতি ও বিলম্ব হওয়ার ক্ষেত্রে লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমদ এর দায় তাত্ক্ষণিকভাবে যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতীয়মান হওয়ায় তাঁকে প্রত্যাহারের অনুরোধ জানানো হয়। স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে প্রাপ্ত মতামতের পরিপ্রেক্ষিতে লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমদ (বিএ-৪৩৫৬, ইঞ্জিনিয়ার্স) প্রধান প্রকৌশলী, চট্টগ্রামকে প্রত্যাহারের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো। 

এদিকে চসিক সূত্রে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রীর অসন্তোষের পর কয়েক মাসের মধ্যে বহুল আলোচিত ওই তিনটি সেতুর নির্মাণকাজ দ্রুত শেষ করা হয়। জাইকার অর্থায়নে প্রথম পর্যায়ের কাজে প্রায় ২০০ কোটি টাকা ব্যয় হয়। বর্তমানে চলছে দ্বিতীয় পর্যায়ের প্রায় সাড়ে ৪০০ কোটি টাকার উন্নয়নকাজ।



মন্তব্য