kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

মার্কিন বিশেষ দূত

রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনে কাজ করছে যুক্তরাষ্ট্র

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার   

১৯ এপ্রিল, ২০১৮ ০৩:৫৪



রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনে কাজ করছে যুক্তরাষ্ট্র

আশ্রিত রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশ থেকে মিয়ানমারে নিরাপদ প্রত্যাবাসনের লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র কাজ করছে বলে জানিয়েছেন সফররত আন্তর্জাতিক ধর্মীয় স্বাধীনতাবিষয়ক যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাম্বাসাডর অ্যাট লার্জ (বিশেষ দূত) স্যাম ব্রাউনব্যাক।

তিনি আরো জানান, সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলমানরা যাতে তাদের নিজেদের দেশ মিয়ানমারে ফিরে পূর্ণ ধর্মীয় স্বাধীনতা ভোগ করতে পারে, ট্রাম্প প্রশাসন সে ব্যাপারেও কাজ করছে।

গতকাল বুধবার দুপুরে স্যাম ব্রাউনব্যাক কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনের সময় জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) পরিচালিত ট্রানজিট কেন্দ্রে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।

তাঁর সফরসঙ্গী বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট বলেন, সীমান্তের শূন্যরেখা থেকে পাঁচ সদস্যের এক রোহিঙ্গা পরিবারের ফিরে যাওয়ার বিষয়টি কোনোভাবেই বাংলাদেশ-মিয়ানমার প্রত্যাবাসন চুক্তির আওতায় পড়ে না।

যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ দূত স্যাম ব্রাউনব্যাক রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনের সময় ট্রানজিট ক্যাম্পে আশ্রিত বেশ কয়েকজন রোহিঙ্গা নারী-পুরুষের সঙ্গে আলাপ করেন। রোহিঙ্গারা তাঁকে জানান, মিয়ানমারে তাঁরা জাতিগত বৈষম্যের শিকার হয়েছেন। তাঁরা সেখানে স্বাধীনভাবে ধর্মীয় কর্মকাণ্ড পালন করতে পারেননি। রোহিঙ্গারা তাঁদের ওপর অমানুষিক নির্যাতনের বর্ণনা দেন।

যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ দূত গতকাল বিকেলে কুতুপালং মধুরছড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন এবং মসজিদের ইমাম, মাদরাসা শিক্ষক ও ধর্মীয় নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন। এর আগে গতকাল সকাল ১১টার দিকে তিনি তুমব্রু সীমান্তের কোনারপাড়া শূন্যরেখায় আশ্রিত রোহিঙ্গাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। সেখানে অবস্থানরত রোহিঙ্গারা জানান, তাঁরা ফিরে যেতে চান। কিন্তু আগে নিরাপদ পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। লুণ্ঠিত সম্পদ, ধর্মীয় স্বাধীনতা ও অধিকার ফিরিয়ে দিতে হবে।

স্যাম ব্রাউনব্যাক গতকাল সকালে কক্সবাজার যান। আজ তিনি ঢাকায় সরকারের প্রতিনিধিদের সঙ্গে সাক্ষাত্ করবেন। আগামীকাল শুক্রবার তাঁর বাংলাদেশ ছাড়ার কথা রয়েছে।



মন্তব্য