kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

চট্টগ্রামে আ. লীগের সভায় হানিফ

খালেদাকে আসলে মুক্ত করতে চায় না বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১১ মার্চ, ২০১৮ ০৪:১৬



খালেদাকে আসলে মুক্ত করতে চায় না বিএনপি

মাহবুবউল আলম হানিফ । ফাইল ছবি

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, বিএনপি সত্যিই যে তাদের নেত্রীকে মুক্ত করতে চায়, সেটা মনে হয় না। কারণ আদালতের রায়ে তিনি দুর্নীতিবাজ প্রমাণিত। বিএনপির নেতারাও জানেন খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান দুর্নীতিবাজ। জনগণ যেমন তাঁদের পছন্দ করে না, তেমনি বিএনপিরও অনেক শীর্ষপর্যায়ের নেতা তাঁদের পছন্দ করেন না।

গতকাল শনিবার দুপুরে চট্টগ্রামের মুসলিম ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত যৌথ বর্ধিত সভায় হানিফ এসব কথা বলেন। আগামী ২১ মার্চ প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার চট্টগ্রামের পটিয়ায় জনসভা উপলক্ষে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

হানিফ বলেন, 'তাঁরা আসলে খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে বের করতে চান না। এ কারণে দেখেন তাঁরা মাঝে মাঝেই বলছেন, কারাগারে যাওয়ার কারণে তাঁর জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পেয়েছে। এক নেতা তো বলেই বসলেন, প্রতিদিন নাকি লক্ষ লক্ষ ভোট বৃদ্ধি পাচ্ছে। কী হাস্যকর কথা না! চুরি করে কেউ যদি অপরাধী হয়ে জেলে থাকে, তার জনপ্রিয়তা বাড়ে-এ রকম কথা কেউ শুনেছে পৃথিবীতে?'

চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরীর সভাপতিত্বে বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। সভায় আগামী মাসের শেষ দিকে বা মে মাসের প্রথম সপ্তাহে চট্টগ্রাম মহানগরে আওয়ামী লীগের একটি জনসভা করার জোর দাবি জানিয়েছেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, নগর কমিটির সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, আ জ ম নাছির উদ্দীন, নগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও সংসদ সদস্য ডা. আফছারুল আমীন, উত্তর জেলার সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ সালাম, দক্ষিণ জেলার সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ। সভায় চট্টগ্রাম নগর, উত্তর ও দক্ষিণের দলীয় কয়েকজন সংসদ সদস্য উপস্থিত ছিলেন।



মন্তব্য