kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

বর্ধিত সভার সিদ্ধান্ত

চট্টগ্রামে একাধিক পদ ছাড়তে হবে আওয়ামী লীগ নেতাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

৪ মার্চ, ২০১৮ ০৩:০০



চট্টগ্রামে একাধিক পদ ছাড়তে হবে আওয়ামী লীগ নেতাদের

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগে যাঁরা একাধিক পদে আছেন তাঁদের একটি রেখে বাকি পদ ছাড়তে হবে। আগামী সাত দিনের মধ্যে স্বেচ্ছায় পদ না ছাড়লে নেওয়া হবে সাংগঠনিক ব্যবস্থা। গতকাল শনিবার দুপুরে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ সহচর জহুর আহমদ চৌধুরীর বাসভবনে গতকাল বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সংগঠনের তৃণমূল নেতৃত্বকে ঢেলে সাজানো ও পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের যথাযথ মূল্যায়নের সিদ্ধান্ত হয়েছে এ সভায়। মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সিদ্ধান্তের কথা জানান। বর্ধিত সভার সিদ্ধান্ত অনুসারে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ৪৪টি সাংগঠনিক ওয়ার্ডে একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তার সরাসরি তত্ত্বাবধানে তিন মাসব্যাপী সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম পরিচালিত হবে। যাদের সামাজিক গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে তারা আগ্রহী হলে দলীয় সদস্যভুক্ত করতে হবে। যদি কোনো ধরনের ছলচাতুরির মাধ্যমে বিএনপি-জামায়াত, সমাজবিরোধী ও অপরাধ জগতের কাউকে সদস্যভুক্ত করার চেষ্টা হয় তাহলে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন নির্বাহী সদস্য দলীয় সংসদ সদস্য এম এ লতিফ, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি নঈম উদ্দিন চৌধুরী, অ্যাডভোকেট সুনীল কুমার সরকার, অ্যাডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, খোরশেদ আলম সুজন, জহিরুল আলম দোভাষ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম রেজাউল করিম চৌধুরী, এম এ রশীদ, কোষাধ্যক্ষ ও সিডিএ চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য শফিকুল ইসলাম ফারুক, চন্দন ধর, মশিউর রহমান চৌধুরী, দেবাশীষ গুহ বুলবুল, মাহবুবুল হক মিয়া প্রমুখ।

সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, মহানগর ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগকে অবগত না করে কেউ দলীয় প্রতীকসংবলিত আত্ম প্রশাস্তি ও প্রচারণামূলক বিলবোর্ড, পোস্টার, ফেস্টুন লাগাতে পারবেন না। কেউ যদি তা করেন তাঁর বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সভাপতির বক্তব্যে মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বর্ধিতসভায় গৃহীত সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়িত হলে আগামী সাধারণ নির্বাচনে নগরীর ছয়টি আসনে নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত হবে। দলে এত দিন ধরে যাঁরা যথাযথভাবে সাংগঠনিক দায়িত্ব পালন করেছেন তাঁদের ধন্যবাদ এবং যাঁরা করেননি তাঁরা পদে থাকার যোগ্যতা হারিয়েছেন।

সভায় ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালনে বিকেল ৩টায় জেলা পরিষদ মার্কেট চত্বরে আলোচনাসভা ও প্রতিটি ওয়ার্ডে সকাল থেকে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ প্রচারসহ কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে দিনব্যাপী কর্মসূচির পাশাপাশি ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস পালনের নানাদিক সভায় আলোচনা হয়েছে।



মন্তব্য